অবশেষে ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত শিশুটির এক স্বজনের দেখা মিলল

আলোচিত সংবাদ দুর্ঘটনা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার পর হাসপাতালে ভর্তি করা শিশুটির পরিচয় মিলেছে। আহত শিশুটির নাম নাইমা। তার বাড়ি চাঁদপুরে। নাইমার চাচা মানিক তার পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত শিশুটির কোন পরিচয় পাওয়া যাচ্ছিলো না।  নিজের নাম বলতে পারছিল না সে। এ সময় স্বজনদের না দেখে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে চারিদিকে ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে কাঁদছিল শিশুটি। হাসপাতালে স্বজন হারানো শিশুটির কান্না দেখে অনেকেই চোখের পানি ধরে রাখতে পারেনি। আবেগ আপ্লুত হয়ে শিশুটিকে কাছে টেনে নেন অনেকে।

নাইমার চাচা মানিক জানান, তিনি ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। নাইমাকে নিয়ে সিলেট থেকে তার মা কাকলী ও দাদি উদয়ন এক্সপ্রেসে করে চাঁদপুরে ফিরছিলেন। পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাদের ট্রেন।

তিনি আরও জানান, নাইমার বাবা মাইনুদ্দিনও দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চাঁদপুর থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রওনা দিয়েছেন। কিন্তু তারা কেউই নাইমার মায়ের মোবাইলে যোগাযোগ করতে পারছেন না। তারা কী অবস্থায় আছেন কিছুই জানা যায়নি।

মঙ্গলবার  ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তনগর ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা ও সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। দুই ট্রেনের শতাধিক যাত্রী আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে পাঁচজনের পরিচয় পাওয়া গেলেও বেশিরভাগেরই পরিচয় পাওয়া যায়নি।