আইএসের হুমকি স্বত্বেও রাশিয়া যাচ্ছেন মেসি; থাকবে অতিরিক্ত নিরাপত্তা

খেলাধুলা ফুটবল

প্রায় একক নৈপুণ্যে আর্জেন্টিনাকে রাশিয়া বিশ্বকাপে নিয়ে গেছেন। কোথায় ফুরফুরে মেজাজে বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার পরিকল্পনা করবেন লিওনেল মেসি, উল্টো প্রাণনাশি ভয়ে তার এখন রাশিয়ায় যাওয়া নিয়েই জেগেছে শঙ্কা! জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের পোস্টারে মেসির রক্তাক্ত ছবি প্রকাশ হওয়ার পর অধিনায়কের বর্তমান নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে শঙ্কা জেঁকে বসেছে খোদ আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশন কর্তাদের মনেও।

জীবনের প্রতি হুমকি থাকলে ছাপ পড়বে খেলায়। আর আর্জেন্টিনার মলিন খেলা মানে রঙ হারাবে বিশ্বকাপ। তাই আর্জেন্টিনা বিশেষ করে মেসির জোরদার নিরাপত্তার আশ্বাস দিচ্ছে রাশিয়া। দেশটিতে নিযুক্ত আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রদূত রিকার্ডো লাগারিও টিওয়াসিস্পোর্টসকে জানিয়েছেন এমন তথ্যই।

‘ছবিতে দেওয়া বার্তা স্পষ্ট। তাই মেসি এবং তার পরিবারের প্রতি আমাদের সমর্থন আছে এবং থাকবে। কারণটা খুবই ভয়ঙ্কর। মেসিই একমাত্র ব্যক্তি যাকে উদ্দেশ্য করে পোস্টার ছাপানো হয়েছে।’ আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রদূত তৎপরতার শুরুর চিন্তাটা তুলে ধরেছেন এভাবে।

‘আমার কোন সন্দেহ নেই যে রাশিয়ান সরকার, রাশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন থেকে বিশ্বকাপে খেলতে আসা দলগুলো, সমর্থক, সাংবাদিকদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই দেওয়া হবে। আমি সবাইকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিচ্ছি।’ রিকার্ডো পরে জানালেন, আইএসের পোস্টার বার্তাকে যে গুরুত্বসহকারেই নিয়েছে বিশ্বকাপের আয়োজক দেশটি সেটিও।

বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে ইকুয়েডরের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে দেশকে বিশ্বকাপে তুলেছেন মেসি। এখন বাকি সময়গুলোতে সুযোগ নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার। সে লক্ষ্যেই রাশিয়ার বিপক্ষে ১১ নভেম্বর প্রীতি ম্যাচ খেলতে দেশটি সফর করবে আর্জেন্টিনা।

সেই ম্যাচে নিজ দেশের খেলোয়াড়রা সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই পাবেন বলে বিশ্বাস লাগারিওর, ‘বলতে গেলে আমাদের বিশ্বকাপ এখনই শুরু হয়ে যাচ্ছে। আমাদের শান্ত থাকতে হবে। আইএসের কাজই হচ্ছে মানুষকে ভয় দেখানো। আমি শুধু বলতে চাই আর্জেন্টিনা ভয়-ভীতিহীন ভাবেই রাশিয়ায় খেলতে আসবে।’
সূত্রঃ চ্যানেল আই