আনুশকার যত প্রেমিক

বলিউড বিনোদন

লিউড সেনসেশন আনুশকা শর্মা। আজকাল প্রায়ই খবরের শিরোনাম হচ্ছেন এই তারকা। তবে সিনেমার চাইতে তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়েই বেশি আলোচনা হচ্ছে। এর অন্যতম কারণ বিরাট কোহলি। এই ক্রিকেট তারকার সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে যাওয়ার পর থেকেই আলোচনার তুঙ্গে রয়েছেন আনুশকা। তবে কোহলির আগেও বেশ কয়েকজন প্রেমিককে নিয়ে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তাঁরা কারা? আনুশকার সেসব প্রেমিকদের কথাই আজ জানাবে বাংলা ইনসাইডার:

জোহেব ইউসুফ

জোহেব ছিলেন আনুশকার প্রথম প্রেমিক। বেঙ্গালুরুতে মডেলিং করতে গিয়ে জোহেবের সঙ্গে পরিচয় হয় আনুশকার। সেখান থেকে প্রেম। প্রায় দুই বছরেরও বেশি সময় চুটিয়ে প্রেম করেছেন দু’জন। এরপর আনুশকা বলিউডে প্রবেশ করলে তাঁদের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। একসময় আনুশকার মন থেকেও হারিয়ে যায় জোহেব।

রণবীর সিং

বলিউডে প্রবেশ করার পর আনুশকার প্রথম প্রেম রণবীর সিং। ২০১০ সালে আনুশকার প্রথম ছবি ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’ মুক্তি পায়। ওই ছবির সেটেই রণবীর সিংয়ের সঙ্গে আনুশকার প্রেমের শুরু। কিন্তু উড়নচণ্ডী রণবীরকে বেঁধে রাখতে পারেন নি আনুশকা।

রণবীর কাপুর

রণবীর কাপুরের সঙ্গে আনুশকার ‘বম্বে ভেলভেট’ ও ‘এ দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিটি বেশ দর্শকপ্রিয়তা পায়। ওই সময় দু’জন একান্তে ঘুরে বেড়াতেন। তাঁরা দু’জন প্রথম অন্তরঙ্গ অবস্থায় ধরা পড়েন করণ জোহরের পার্টিতে। এরপর বিভিন্ন জায়গায় অন্তরঙ্গ অবস্থায় ছবি শিকারিদের কবলে পড়েন। এরপর দীপিকা পাড়ুকোন রণবীরের মনে জায়গা করে নিলে কেটে পড়েন আনুশকা।

শহীদ কাপুর

‘বদমাশ কোম্পানি’ ছবিতে শহীদ কাপুর ও আনুশকা শর্মাকে একসঙ্গে দেখা যায়। ওই ছবির পর থেকেই নাকি হার্টথ্রব শহীদের প্রেমে হাবুডুবু খান আনুশকা। ইমরান খানের দেওয়া ‘মেরে ব্রাদার কি দুলহানিয়া’ ছবির সাকসেস পার্টিতে শহীদ-আনুশকা অন্তরঙ্গ অবস্থায় ধরাও পড়েন। কিন্তু শহীদের নানামুখী প্রেম আনুশকাকে দূরে ঠেলে দেয়।

সুরেশ রায়না

ক্রিকেটারের সঙ্গে আনুশকার প্রেমে জড়ানোর ঘটনা বিরাট কোহলিই প্রথম নয়। আরেক তারকা ক্রিকেটার সুরেশ রায়নার সঙ্গেও আনুশকার প্রেমের গুঞ্জন শোনা যায়। সেটা অবশ্য কোহলির সঙ্গে প্রেমে জড়ানোর অনেক আগের ঘটনা। আনুশকার অনেক বড় ভক্ত সুরেশ রায়না। একথা বেশ কয়েকবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন রায়না। দু’জন গোপনে বেশ কিছুদিন প্রেম করেছেন বলেও শোনা যায়।

অর্জুন কাপুর

আনুশকার অফিসে প্রায়ই অর্জুনকে দেখা যেত। এমনকি মুম্বাইয়ের জহু এলাকার বিভিন্ন কফি শপে অন্তরঙ্গ অবস্থায় ছবি শিকারিদের হাতে ধরাও পড়েছিলেন দু’জন। কিন্তু তাঁদের প্রেম নিয়ে কোনো প্রশ্ন করা হলে দিব্যি ভালো বন্ধু বলে চালিয়ে দিতেন।