আবারও চোখের জলে ভাসলেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার

খেলাধুলা ফুটবল

গতকাল শুক্রবার আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে শুক্রবার জাপানের ‍মুখোমুখি হয় ব্রাজিল। ৩-১ গোলের প্রত্যাশিত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে সেলেসাওরা। নেইমার করেন একটি।

গোল কিন্তু খেলেন দুদার্ন্ত । আসলে সংবাদ মাধ্যমে অনেক কিছু্ই বলা হয়না। আসল কথাটাও ভুল হয়ে যায় অনেক সময়। নেইমার তো বিশ্বসেরা ফুটবলার তার অনেক কিছুই করার আছে নিজ দলের জন্য। শুধু যে পিএসজি নয় তা তিনি স্পষ্ট ভাষায় বলে দিলেন। ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচের শেষে দলের সেরা তারকা নেইমারকে নিয়েই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হন ব্রাজিলের কোচ তিতে।

সংবাদ সম্মেলনে ব্রাজিল-জাপানের ম্যাচ ছাপিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে একের পর এক আক্রমণ আসতে থাকে নেইমারকে লক্ষ্য করে। বিশেষ করে সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র করে। নেইমারকে অভিযুক্ত করেন ক্লাবের ড্রেসিংরুমে জন্য সমস্যা সৃষ্টিকারী একটি চরিত্র হিসেবে। প্রশ্ন তোলা হয় ক্লাবের প্রতি তার অঙ্গিকার নিয়েও!

ফরাসি সাংবাদিকদের এমন আক্রমণে কেঁদেই ফেলেন নেইমার। যে কারণে নেইমারের হয়ে কথা বলেন কোচ তিতে। তিনি আগেই অনুমতি চেয়ে নেন, ‘আপনারা যদি সমর্থন করেন তবে নেইমারের বিষয়ে আমি কথা বলতে চাই। ’

এরপর ব্রাজিলের অভিজ্ঞ কোচ তিতে বলেন, ‘আমরা গত দেড় বছর ধরে একসঙ্গে কাজ করছি। একথা শুনতে শুনতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি যে, তিতের সঙ্গে নেইমারের সমস্যা চলছে। কারণ, ড্রেসিংরুমে তার প্রভাব। আমরা নিখুঁত নই। আমরা মানুষ এবং অনেক সময় সঠিকভাবে প্রতিক্রিয়া দেখাই না। এটা আমার ক্যারিয়ারেও হয়েছে। এটা কি ভুল? অনেক ধরণের পারিপার্শ্বিক পরিবেশ থাকে এবং সেগুলোকে ঢালাওভাবে সামগ্রিক রূপ দেয়া থেকে বিরত থাকা উচিৎ। ’

ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ২০১৪ বিশ্বকাপে নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতে পারেনি ব্রাজিল। তিতের অধীনে সেই বাজে সময় থেকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। দুর্দান্ত খেলে ল্যাটিন আমেরিকা থেকে সবার আগেই রাশিয়ার টিকিট নিশ্চিত করে তারা। যার পেছনে বড় ভূমিকা ছিল নেইমারের। জাপানের বিপক্ষে ম্যাচেও নেইমারের ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। তাই সংবাদ সম্মেলনে প্রিয় শিষ্যের প্রশংসা করতে মোটেও ভুল করেননি তিতে।

ব্রাজিলিয়ান কোচ বলেন, ‘আমাদের উচিৎ নেইমারের চরিত্র, তাঁর স্বভাব এবং বিশাল হৃদয়টাকে নিয়ে কথা বলা। ’

পরবর্তীতে কথা বলেছেন নেইমারও। উড়িয়ে দিয়েছেন সাংবাদিকদের সব অভিযোগ। সাবেক বার্সেলোনার এই তারকা ফরোয়ার্ড বলেন, ‘তারা (ফরাসি সাংবাদিকরা) অনেক গল্পই বানিয়েছে যা সত্য নয়। কোচ (উনাই এমেরি) এবং কাভানির সঙ্গে আমার কোন সমস্যা নাই। প্যারিসের সবকিছুই পারফেক্ট, আমি এখানে ভালো আছি, সুখে আছি এবং আমি পিএসজিতে সেই খেলোয়াড় হতে চাই যে কিনা মাঠে সতীর্থদের জন্য সবকিছু দিতে পারে। ’

কাতালান ক্লাবটি থেকে রেকর্ড পারিশ্রমিকের বিনিময়েই ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে নতুন করে ঠিকানা গড়েন নেইমার। বিতর্ক থাকলেও মাঠে কিন্তু দুর্দান্ত খেলছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। তারপরও এমন সমালোচনায় ব্যথিত নেইমার।

তিনি বলেন, ‘আমি খেলায় আমার ভূমিকার গুরুত্ব জানি এবং কোচ আমার কাছে যেটা চায় তার সবটাই দেয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু এই ধরণের গল্প বানানো আমাকে কিছুটা কষ্ট দেয়। মূলত মানুষ প্রতিদিনের ঘটনাগুলো জানে না তাই এমন নির্বোধের মতো কথা বলে। আমি গসিপ এবং এই ধরণের গল্প পছন্দ করি না। ’

বিশ্ব গণমাধ্যম যেন এখন নেইমারের পেছনেই ছুটছে। পিএসজিতে যাওয়ার মাস ছয়েক পার না হতেই নতুন করে গুঞ্জনের ডালপালা মেলতে শুরু করেছে। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার নাকি আবারও লা লিগায় ফিরছেন। তবে এবার ন্যু ক্যাম্পে নয়। বার্সেলোনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলতে! যদিওবা এ ব্যাপারে এখনও মুখ খুলেননি নেইমার।