আবার ঝড়ো ফিফটির বিনোদন দিয়েই ফিরলেন গেইল

ক্রিকেট খেলাধুলা

প্রথম ম্যাচে প্রায় দুটি জীবন নিয়েও ঝড় তুলতে পারেননি। দ্বিতীয়টিতে ভুল হয়নি। ঝড়ো ফিফটিতে ক্রিস গেইল রংপুর রাইডার্সের জয়ে ফেরার পথ করে দিয়েছিলেন। এবারও দ্বিতীয় ওভারেই একটা জীবন। সুনিল নারিনের বলে আবু হায়দারের সহজ মিসে। এই সুযোগ কি আর মিস করা যায়! ঢাকা ডায়নাইমাইটসের বোলিং দারুণ শক্ত বটে। তাতে কি? তিনি তো ক্রিস গেইল! ২৬ বলেই ফিফটি। ৭ ওভারেই দলের রান ৭১। ১ উইকেটে। শেষ পর্যন্ত মোসাদ্দেক হোসেন অষ্টম ওভারের প্রথম বলে ঢাকার শিবিরে এনেছেন স্বস্তি। ২৮ বলে ৫টি চার ও ৪টি ছক্কায় অবসান গেইলের আরো একটি আগ্রাসী ইনিংস। ৫১ রানে বিদায়।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় গেইলের ঝড়ের কল্যাণেই ৮ ওভারে রংপুরের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৭৫ রান। আরেক বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন ম্যাককালামের সাথে ওপেনিং জুটিটা ৪.১ ওভারে ৩৬ রানে শেষ হয়েছিল গেইলের। যেখানে ৮ বলে মাত্র ৬ রান ছিল ম্যাককালামের। তিনি দর্শক ছিলেন যেন! মোহাম্মদ মিঠুন ১০ আর শাহরিয়ার নাফীস ২ রানে ব্যাট করছেন।

একজন গতবারের চ্যাম্পিয়ন দলের অধিনায়ক। আরেকজন বাকি তিন আসরের শিরোপা জয়ী নেতা। কিন্তু সাকিব আল হাসানের সাথে মাশরাফি বিন মুর্তজার দেখা এই প্রথম, এবারের বিপিএলে। ঢাকায় এবারের আসরের প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচটিতে লড়ছে দুই জায়ান্ট ঢাকা ডায়নামাইটস ও রংপুর রাইডার্স। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দিনের দ্বিতীয় এই ম্যাচে টস জিতেছেন সাকিব। যথারীতি ডিউ ফ্যাক্টরের কথা মাথায় রেখে মাশরাফিদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছেন।

বিপিএলের পঞ্চম এই আসরে ম্যাচ হয়ে গেছে ২৩টি। কিন্তু ২৪তম খেলায় গিয়ে দেখা হচ্ছে জাতীয় দলের দুই অধিনায়কের। ওয়ানডে নেতা মাশরাফি এবং টি-টুয়েন্টি ক্যাপ্টেন সাকিবের দল শুরু থেকেই আসরের ফেভারিট। কিন্তু ঢাকা তুলনামূলক বিচারে বেশ এগিয়ে এখন। যদিও আগের ম্যাচেই তারা হেরেছে তামিম ইকবালের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে। তাতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানটাও হারাতে হয়েছে। এই ম্যাচে মাশরাফিদের হারাতে পারলে আবার শীর্ষের জায়গাটা হবে তাদের। দলটা তাদের দারুণ।

মাশরাফির দল অবশ্য বেশ বিপদেই ছিল। এখনো আছে। পয়েন্ট টেবিলে সাকিবরা ওপরের দিক থেকে দ্বিতীয়, সেখানে রংপুর নিচের দিক থেকে তৃতীয়। ২টি ম্যাচে জিতেছে মাত্র। হেরেছে ৩টিতে। আসরের আধেকটা প্রায় শেষ। এই অবস্থায় হারার সুযোগ নেই। আগের রাতেই ক্রিস গেইল তার আসল চেহারা খুঁজে পেয়েছেন। ছক্কা চারে মাতিয়েছেন বিপিএল। দারুণ বিনোদন তার সাথে দিয়েছে ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ব্যাটিংও। তারপরও একটা সময় হারের শঙ্কা পেয়ে বসেছিল তাদের। টাইট ম্যাচটা জিতে জয়ের ধারাতেই ফিরেছে। এখন অবশ্য সামনে বিরাট পরীক্ষা। কারণ, খাতা কলমে সাকিবের ঢাকা কিন্তু সবচেয়ে শক্তিশালী দল।

রংপুর রাইডার্স একাদশ : ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, ক্রিস গেইল, শাহরিয়ার নাফীস, মোহাম্মদ মিঠুন, রবি বোপারা, থিসারা পেরেরা, জিয়াউর রহমান, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সোহাগ গাজী, রুবেল হোসেন, লাসিথ মালিঙ্গা।

ঢাকা ডায়নামাইটস একাদশ : ইভিন লুইস, শহিদ আফ্রিদি, মেহেদী মারুফ, নাদিফ চৌধুরী, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), জহুরুল ইসলাম, কাইরন পোলার্ড, মোসাদ্দেক হোসেন, সুনিল নারিন, আবু হায়দার রনি, মোহাম্মদ আমির।