উল্কাবৃষ্টি দেখবেন, শুক্র-শনি রাতে, চোখ রাখুন আকাশে

প্রধান খবর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময় আকাশে দেখা যায় সিংহ নক্ষত্রমণ্ডলীর উল্কাবৃষ্টি। মূলত নভেম্বর মাসের ৬ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত এই উল্কাবৃষ্টি চললেও এটি সবচেয়ে ভাল করে দেখা যাবে শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) রাতে।

আকাশে প্রায় নতুন চাঁদ থাকার কারণে এ বছর সিংহ নক্ষত্রমণ্ডলীর উল্কাবৃষ্টি দেখা যাবে আরও স্পষ্টভাবে। সিংহ নক্ষত্রমণ্ডলী দক্ষিণ গোলার্ধের আকাশের উত্তরপূর্ব কোণে অবস্থান করছে।

উল্কাবৃষ্টি সেখান থেকে শুরু হলেও ধাবমান উল্কাপিণ্ড আকাশের যেকোনো দিকেই দেখা যেতে পারে।

উল্কাবৃষ্টি চলার সময় ঘণ্টায় প্রায় ১৫টি উল্কা দেখা যেতে পারে। সিংহ নক্ষত্রমণ্ডলীর উল্কাবৃষ্টির সময় বৃহৎ ও উজ্জল উল্কাপিণ্ড আকাশের একদিক থেকে আরেক দিকে ছুঁটে যেতে দেখা যায়।

পৃথিবী টেম্পেল-টাটল ধূমকেতুর ছেড়ে যাওয়া ধুলার মেঘের মধ্যে দিয়ে ছুঁটে যাওয়ার সময় এই উল্কাবৃষ্টি হয়। ১৮৬৬ সালে প্রথম টেম্পেল-টাটল ধূমকেতু আবিষ্কার হয়। টেম্পেল-টাটলের ছেড়ে যাওয়া ছোট ছোট পাথরখণ্ড পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করলে সেগুলো বাতাসের সঙ্গে সংঘর্ষের ফলে জ্বলে ওঠে। মনে হয় বড় বড় আগুনের গোলা ছুঁটে যাচ্ছে।

বায়ুমণ্ডলে ধুলাবালি খুব কম এমন জায়গা থেকে উল্কাবৃষ্টি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে। এমন স্থান যে ঢাকায় খুঁজে পাওয়া কঠিন তা বলাই বাহুল্য। তবে গভীর রাতে বায়ুমণ্ডলে ভাসতে থাকা ধুলোর পরিমাণ কমে গেলে উল্কাপাত দেখতে পাওয়া সম্ভব।

সিংহ নক্ষত্রমণ্ডলীর উল্কাপাত কোনো টেলিস্কোপের সাহায্য ছাড়াই খালি চোখে দেখা যায়। আপনার খুব ভাল ক্যামেরা থাকলে দৃষ্টিনন্দন উল্কার ছবিও তুলতে পারবেন।

এই উল্কাবৃষ্টি শুক্রবার সবচেয়ে ভাল দেখা গেলেও, কেউ যদি আকাশে চোখ রাখেন তাহলে শনিবারও (১৮ নভেম্বর) আকাশে উল্কা ঝরে পড়া দেখতে পারবেন।