এই মাত্র বাংলাদেশ-ভারত দ্বন্দ্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে দায়ী করে যা বললেন সাকিব

ক্রিকেট খেলাধুলা

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের উজ্জ্বল নক্ষত্র অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সারা বিশ্বের ফ্র্যাঞ্চাইজি লীগগুলোতে দারুণ জনপ্রিয় এই টাইগার ক্রিকেটার। আইপিএল, পিএসএল, সিপিএল কিংবা ঘরের টুর্নামেন্ট বিপিএলে তার দিকেই বিশেষ নজর থাকে সবার।

বর্তমানে এই ক্রিকেটার ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন আইপিএলে। গত ৭ আসরে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেললেও এবার তিনি নাম লিখিয়েছেন দুইবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়ন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদে। এরই মধ্যে ব্যাটে বলে চমক দেখিয়েছেন।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে মাত্র ১২ বলে ২৪ রানের এক ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন তিনি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সাকিব জানিয়েছেন তিনি যে দলের হয়েই খেলেন, সেখানে অবদান রাখার চেষ্টা করেন ব্যাট হাতে কিংবা বল হাতে।

সাকিবের ভাষ্যমতে, “আমার মূল লক্ষ্য হচ্ছে যখন আমি কোনো দলে খেলি তখন দলের হয়ে অবদান রাখতে চাই। সেটি বোলিং হোক কিংবা ব্যাটিং। আমার ক্রিকেট জীবনে এমনটাই আমি চেয়ে এসেছি সর্বদা। আমি এই খেলাটি ভালোবাসি এবং তাই খেলে যাচ্ছি।”

পজিশন চিন্তা না করে খেলাটাকে উপভোগ করে যেতে চান এই টাইগার ক্রিকেটার, “আমি কোন পজিশনে আছি কিংবা কি করছি সেটা বড় কথা নয়, আমি খেলাটির প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করছি এবং আমি শুধুমাত্র এমনভাবে উপভোগই করে যেতে চাই।”

সাকিব বাংলাদেশের হয়ে খেললেও ভারতেও বেশ জনপ্রিয় এই টাইগার ক্রিকেটার। এই দুই দলের খেলার আগে বেশ উত্তেজনা বিরাজ করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দুই সমর্থকদের মধ্যেও কথার লড়াই শুরু হয়। সাকিব অবশ্য জানিয়েছেন এই দ্বন্দ্ব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সৃষ্টি।

তিনি ক্রিকেটারদের মাঠের ব্যবহারকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন, “আমার মতে এর বেশিরভাগই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সৃষ্টি। আর এই বিষয়ে আমাদের কথা বলা আসলে উচিৎ নয়। আমরা যদি ক্রিকেটের দিক থেকে দেখি এবং ক্রিকেটাররা মাঠে কিরূপ ব্যবহার করছে সেদিক দিয়ে চিন্তা করি তাহলে বলতে হবে আমাদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই।”

মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকলেও মাঠের বাইরে সবাই ভালো বন্ধু বলে জানিয়েছেন সাকিব। বিসিসিআইকেও ভালো বন্ধু বলেই মনে করেন তিনি। বাংলাদেশের ক্রিকেটে তাদের অবদানের কথা ভাল করেই মনে করিয়ে দিয়েছে এই বাংলাদেশি ক্রিকেটার।

সাকিব জানিয়েছেন, “প্রত্যেকে দলই জয়ের জন্য খেলে এবং আমরা সেটাই করে থাকি মাঠে। আর মাঠের বাইরে আমরা অনেক ভালো বন্ধু। বিসিসিআই বিসিবিকে অনেক সাহায্য করেছে। আমরা যখন টেস্ট স্ট্যাটাস পেয়েছিলাম তাদের সাহায্য অনেক উপকারী ছিলো। শুধু ভারতই নয়, শ্রীলঙ্কা এবং পাকিস্তানসহ উপমহাদেশের প্রত্যেকটি দেশই আমাদের সাহায্য করেছে টেস্ট স্ট্যাটাস পেতে।”

সুত্রঃ- বিনোদন বাজার