এপ্রিলেই টাইগাররা পাচ্ছে প্রধান কোচ জানালেন: পাপন

ক্রিকেট খেলাধুলা

২০১৯ সালের ইংল্যান্ডে বসছে বিশ্বকাপ এই হিসাবে বিশ্বকাপের আর মাত্র বাকি ১৩ মাস।  যদি এই সময়টা অবহেলায় কাতায় কাটাই বাংলদেশ তবে বাংলদেশকে চরম মূল্য দিতে হতে পারে।  সেই চন্ডিকা হাথুরুসিংহের চলে যাবার পর থেকেই প্রধান কোচের পদটি খালী রয়েছে বাংলাদেশ দলের। 

এরই মাঝে বাংলাদেশ শ্রীলংকায় একটি অন্যটি দেশের মাটিতে দুটি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ দল।  তবে ত্রিদেশীয় আর দ্বিপাক্ষিক সিরিজে কোচের ভূমিকায় টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্বপালন করেন খালেদ মাহমুদ 

সুজন।  দলের নিয়মিত ম্যানেজারের পাশাপাশি হাথুরুর সহকারী রিচার্ড হ্যালসেরের কাঁধেও দায়িত্ব সপে দাওয়া হয়।  তার ফলা ফল দেখেছে পুরো বাংলাদেশ ।  লঙ্কানদের কাছে টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি সিরিজে নাস্তানাবুদ হতে হয়েছিল টাইগারদের।  এমনটা আর কপদিন চলবে । 


পরে শ্রীলঙ্গায় নিদাহাস ট্রফিতে কোর্টনি ওয়ালশকে দ্বায়িত্ব দ্বয়া হলেও।  সেখান্মে ভাল ফলাফল করতে পারেনি বাংলাদেশ দল।  তবে ভারতের সঙ্গে চরম মোকাবেলা করে হেরেছে বাংলাদেশ দল।  তবে হেরে গেলে সেখানে সব ভাল মখেলার মানই আর ত্থাকেনা। 

এই অবস্থা থেকে বাংলাদেশকে ফেরাতে দলে কোচের দরকার এই নিয়ে বিসিবি প্রধানের চিন্তাটা কম নয় ।  গতকাল রোববার ভলিবল ফেডারেশনে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন নাজমুল হাসান পাপন। 

পাপন বলেন, আমরা শুধু প্রধান কোচ নিয়েই ভাবছিনা।  সহকারী কোচ, ফিল্ডিং কোচ, ব্যাটিং কনসালটেন্টসহ সব বিভাগের জন্যই ভাবছি।  আশা করছি এই মাসের (এপ্রিল) মধ্যেই ফাইনাল হয়ে যাবে। 

তিনি আরও বলেন, পূর্বাচলে নতুন স্টেডিয়াম হবে।  মাঠের কাজ আমরা করতে পারি যদি আমাদেরকে জায়গাটি বিনামূল্যে বা প্রতীকী মূল্যে দেয়া হয়।  জায়গা এখনও হস্তান্তর প্রক্রিয়ার মধ্যে আছে।  ডিজাইন আমরা চূড়ান্ত করে ফেলেছি এরই মধ্যে।  যেহেতু বর কাজ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ই কাজ টি করেবে।