কোহলির ব্র‍্যান্ড ভ্যালু মেসি থেকেও বেশি!

প্রধান খবর

একটা সময় ক্রিকেট খেলাটা কেবল ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যে খেলাটি আফ্রিকা ও এশিয়া মহাদেশেও পা রাখে। তবে অনেক সময় লাগত বলে ক্রিকেট-বাণিজ্য সেভাবে প্রচার ও প্রসার পায়নি। আজ থেকে কয়েক দশক আগেও ক্রিকেটকে ইউরোপের খুব কম মানুষই চিনত।

তবে টি-টোয়েন্টি আসতেই বদলে যায় ক্রিকেটের চেহারা। চার-ছক্কার খেলায় হুহু করে বেড়ে যায় বাণিজ্য। আর এক দশকে সেটা এতই আগ্রাসী রূপ ধারণ করে যে ক্রিকেটাররা কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যান। ফুটবলের জনপ্রিয়তাকে ছাড়াতে না পারলেও ক্রিকেট-বাণিজ্য এখন নিজের গণ্ডি ছেড়ে বৈশ্বিক আসরে পা দিয়েছে। মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলিরা এখন আন্তর্জাতিক আইকনে পরিণত হয়েছেন। নামিদামি সব ব্র্যান্ড ছুটছে কোহলিদের পেছনে। আর এতে ক্রিকেটাররা এতই টাকা পাচ্ছেন যে তাঁদের সামনে টিকে থাকতে কষ্ট হচ্ছে মেসি, টাইগার উডসদের মতো তারকাদেরও।

 

সম্প্রতি ব্র্যান্ডভ্যালুতে মেসিকে ছাড়িয়ে গেছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানের ব্র্যান্ডভ্যালু ১৪.৫ মিলিয়ন ডলার। কোহলির চেয়ে পুরো এক মিলিয়ন ডলার পিছিয়ে আর্জেন্টাইন ফুটবল জিনিয়াস লিওনেল মেসি। এমনই তথ্য জানিয়েছে ফোর্বস ম্যাগাজিন। জনপ্রিয় এই ম্যাগাজিনটির তথ্যমতে, বিশ্বের সেরা অ্যাথলেটদের মধ্যে ব্র্যান্ডভ্যালুর দিক থেকে বিরাট কোহলি রয়েছেন ৭ নম্বরে। আর মেসি রয়েছেন নবম স্থানে।

বার্ষিক বেতন, বোনাস ও বিনিয়োগ খাতের আয় বাদ দিয়ে একজন অ্যাথলেটের মোট আয় হিসাব করলে তাঁর ব্র্যান্ডভ্যালু পাওয়া যায়। কারণ বাকি অর্থটা তিনি কোনো না কোনো প্রতিষ্ঠানের পণ্যদূত হিসেবে পেয়ে থাকেন। সেই হিসেবে বিশ্বের সেরা ব্র্যান্ডভ্যালু-সম্পন্ন খেলোয়াড় হচ্ছেন সুইজারল্যান্ডের টেনিস তারকা রজার ফেদেরার। তাঁর ব্র্যান্ডভ্যালু ৩৭.২ মিলিয়ন ডলার। পরের নামটি বিখ্যাত বাস্কেটবল তারকা লেব্রন জেমসের। তাঁর ব্র্যান্ডভ্যালু ৩৩.৪ মিলিয়ন ডলার।