ক্রিকেটারদের প্রতি আরও কঠোর হবে বললেন আইসিসি

ক্রিকেট খেলাধুলা

ক্রিকেটের ২২ গজ ভদ্র লোকের খেলা বলেই সবাই জানে। তবে এমন পরিচয়ে পরিচিত ক্রিকেট বারবার হচ্ছে কলঙ্কিত। মেজাজ হারিয়ে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের প্রতি অসদাচারণ নতুন কিছু নয়। এমন ঘটনা হর-হামেশা ঘটিয়ে ম্যাচ থেকে নিষিদ্ধ, জরিমানা ও ডিমেরিটস পয়েন্টস পাচ্ছে ক্রিকেটাররা। তবে অস্ট্রেলিয়ার মতো শক্তিশালী দলের বল টেম্পারিংয়ের মতো জঘন্য ঘটনার পর নড়ে-চড়ে বসে আইসিসি। ক্রিকেটের এই সর্বোচ্চ সংস্থার শঙ্কা জেগেছে, এখনই লাগাম টেনে না ধরলে ভদ্র লোকের খেলাটাকে কোনোভাবেই ভদ্রস্থ রাখার উপায় থাকবে না। তাই ক্রিকেটারদের আচরণবিধির সংস্কার চাচ্ছে আইসিসি। এসব ব্যাপারে আগামী এপ্রিলের সভায় উত্থাপন করলেও এখনই দ্রুত পদক্ষেপের পক্ষে আইসিসি।

মূলত অস্ট্রেলিয়ার বল টেম্পারিংয়ের ঘটনাই আইসিসিকে কঠোর হতে বাধ্য করছে। তবে এমন ঘটনায় অসি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথকে কেবল এক ম্যাচ নিষিদ্ধ ও জরিমানা করেই ক্ষান্ত দেয় আইসিসি। অবশ্য ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এক বছরের জন্য স্টিভেন স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে নিষিদ্ধ করে। তরুণ ওপেনার  ক্যামেরন ব্যানক্রফট নিষিদ্ধ হন নয় মাসের জন্য। তবে আইসিসি থেকে শাস্তির ব্যবস্থা থাকলেও সেই শাস্তি উপেক্ষা করে ক্রিকেটাররা অসংযত আচরণ করে যাচ্ছে। এ জন্যই এসব ব্যাপারে আরো কঠোর হওয়ার কথা ভাবছে আইসিসি।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন মনে করেন চলমান পরিস্থিতিতে মাঠের ঘটনা তাঁদের বাধ্য করেছে ক্রিকেটারদের প্রতি কঠোর হতে। তিনি বলেন, ‘কয়েকদিন ধরেই আমরা মাঠে খেলোয়াড়দের অসদাচারণ দেখছি। স্লেজিং, অশালীন ভাষা, আম্পায়ারের বিরুদ্ধাচারণ এমনকি মাঠ পরিত্যাগ করার মতো ঘটনাও ঘটেছে। সবশেষ বল টেম্পারিং। সবকিছুই আমাদের এপ্রিলের সভায় আলোচনার বিষয়বস্তু হিসেবে থাকবে। তবে পরিস্থিতি যা দাঁড়িয়েছে, যত দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় ততই মঙ্গল।’