ক্ষণিকের জন্য কোটিপতি অস্ট্রেলিয়ার ক্লেয়ার ওয়েইনরাইট নামে এক নারী

আন্তর্জাতিক

এমনটিই ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ায় এক নারীর ক্ষেত্রে। এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় ক্লেয়ার ওয়েইনরাইট নামে ওই নারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে দুই কোটি ৪৫ লাখ ডলার জমা হয়। তবে সেটা দেখে তিনি মোটেও আপ্লুত হননি। আর সেখান থেকে তিনি কোনো অর্থও খরচ করেননি। কারণ তিনি জানান, একজন আইনজীবী হিসেবে এ ধরনের ঘটনা সম্পর্কে তিনি আগে থেকেই জানেন।

গত সেপ্টেম্বর মাসে ২৬ বছর বয়সী ওয়েইনরাইটের কাছে ব্যাংক হিসাব সংক্রান্ত একটি চিঠি আসে। ন্যাশনাল অস্ট্রেলিয়া ব্যাংক (এনএবি) থেকে আসা ওই চিঠিতে বলা হয়, তার গৃহ ঋণের কিস্তি হিসেবে দুই হাজার ৫০০ ডলারের পরিবর্তে দুই কোটি ৫১ লাখ ডলার ফেরত নেওয়া হবে। সেই সঙ্গে অন্য একটি ব্যাংকের সংযুক্ত হিসাব থেকে আড়াই কোটি ডলার তাঁর হিসাবে জমা হয়। হঠাৎ তাঁর ব্যাংক হিসাব ফাঁকা হয়ে যাওয়ায় হতভম্ব হয়ে পড়েন তিনি। পরে এ বিষয়ে খোঁজ নিতে গেলে পুরো ঘটনা জানা যায়।

এ ঘটনার জন্য অবশ্য দুঃখ প্রকাশ করেছে এনএবি। আর ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁর গচ্ছিত অর্থ।

দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফকে দেওয়া এক বিবৃতিতে ওয়েইনরাইট বলেন, ‘আমি একজন আইনজীবী। এ ঘটনার পর বুঝতে পারি কোথাও ভুল হয়েছে। এ কারণে আমি ওই অর্থ খরচ করিনি।’ তবে ফেসবুকে এটা নিয়ে মজা করতে ছাড়েননি তিনি। তাঁর ব্যাংক হিসাবের দুই কোটি ৪৫ লাখ ডলার দেখিয়ে একটি স্ক্রিনশট ফেসবুকে পোস্ট করেছেন ক্ষণিকের এই কোটিপতি।