গেইল-ম্যাককালামে শক্তি বাড়ছে রংপুরের

ক্রিকেট খেলাধুলা
কাগজে-কলমে শক্তিশালী দলই গড়েছে রংপুর রাইডার্স। যদিও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরে এখনো শক্তিমত্তার ছাপ ফেলতে পারেনি মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বাধীন রংপুর। তিন ম্যাচের দুটিতে হেরে গেছে দলটি। ব্যাটিং-বোলিং মিলে সঠিক কম্বিনেশন খুঁজে পেতেও সংগ্রাম করছে রংপুর।
তবে খুব দ্রুতই ভারসাম্য ফিরছে রংপুর শিবিরে। চতুর্থ ম্যাচের আগেই দলে যোগ দিচ্ছেন হালের টি-টোয়েন্টির ধন্ধুমার ক্রিকেটের দুই বড় তারকা ক্রিস গেইল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। গতকাল রংপুরের মিডিয়া বিভাগ থেকে জানা গেছে, আগামী ১৬ নভেম্বর ঢাকায় আসছেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দেবতা গেইল ও আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে সিদ্ধহস্ত নিউজিল্যান্ডের ম্যাককালাম। সবকিছু ঠিক থাকলে ১৮ নভেম্বর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে রংপুরের জার্সিতে দেখা যাবে এ দুই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যানকে। এছাড়া আগামীকাল রংপুরে যোগ দেবেন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার কুশল পেরেরা।
সারা বিশ্বেই টি-টোয়েন্টি লিগগুলোতে গেইল, ম্যাককালামের চাহিদা অনেক। একা হাতে ম্যাচ জেতাতে সক্ষম তারা। ব্যাট হাতে ঝড় তুলতে অভ্যস্ত দুই তারকা হয়তো রংপুরের হয়েও ইনিংসের গোড়াপত্তন করবেন। আর চলমান বিপিএলে এখন পর্যন্ত ওপেনিংয়েই সবচেয়ে বিপর্যস্ত সময় কেটেছে রংপুরের।
শেষ তিন ম্যাচের সবকটিতেই ইনিংসের প্রথম ওভারে বিচ্ছিন্ন হয়েছে দলটির ওপেনিং জুটি। তিন ম্যাচে যথাক্রমে ১, ২ ও ৩ রানে রংপুরের এক ওপেনার সাজঘরে ফিরেছেন। ওপেনিংয়ে জনসন চালর্স, অ্যাডাম লিথ ও জিয়াউর রহমানরা ব্যর্থ হয়েছেন দলের ভরসা হতে। প্রতি ম্যাচেই চাপ সামলাছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। গেইল-ম্যাককালাম আসলে ওপেনিংয়ে ভালো কিছু আশা করতে পারে রংপুর। তারা জ্বলে উঠলে চার-ছক্কার বিনোদনের সঙ্গে দল হিসেবে বড় স্কোরের স্বপ্নও দেখতে পারবে মাশরাফির দল।
তৃতীয় ম্যাচ খেলার পর টানা ছয় দিনের বিরতি পাচ্ছে রংপুর। শনিবার রাজশাহী কিংসের কাছে ম্যাচ হারা রংপুর গতকাল অনুশীলন করেনি।