চলতি মাসেও হতে পারে নিম্নচাপ-ঘূর্ণিঝড়

প্রধান খবর বাংলাদেশ

বিরূপ আবহাওয়ায় বর্ষা পেরিয়ে গেলেও হেমন্তকালে ইংরেজি মাস অক্টোবরে সারা দেশে স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। গত মাসে শুধু ঢাকাতেই বৃষ্টিপাত স্বাভাবিকের তুলনায় ১৪২ মিলিমিটার বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে।

চলতি মাসেও বিরূপ আবহাওয়ার ফল দেখা দিতে পারে। এ মাসে দুই একটি নিম্নচাপ থেকে একটি ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস প্রদানের জন্য বিশেষজ্ঞ কমিটির নিয়মিত বৈঠকে এসব তথ্য জানিয়ে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার আগারগাঁওয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্রে অক্টোবর মাসে সংঘটিত আবহাওয়ার বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ। পর্যালোচনাকালে পরিলক্ষিত হয় যে, অক্টোবর মাসে সারা দেশে স্বাভাবিক অপেক্ষা বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে ৭৬ শতাংশ। ৮ অক্টোবর উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়। এটি লঘুচাপ থেকে নিম্নচাপে পরিণত হয়ে পরবর্তীতে সুস্পষ্ট লঘুচাপ ও লঘুচাপে পরিণত হয় এবং পরিশেষে মৌসুমি অক্ষের সাথে মিলিত হয়।

এ সময় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হয়।

প্রাপ্ত আবহাওয়া উপাত্ত, উর্দ্ধাকাশের আবহাওয়া বিন্যাস, বায়ুমণ্ডলের বিভিন্ন স্তরের বিশ্লেষিত আবহাওয়া মানচিত্র, জলবায়ু মডেল এবং এল নিনো/লা নিনার অবস্থা যথাযথ বিশ্লেষণ করে কমিটি নভেম্বরের পূর্বাভাস দিয়েছে। পূর্বাভাস অনুযায়ী, নভেম্বর মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে (৫-৮ দিন)। এ মাসে বঙ্গোপসাগরে এক-দুটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে যার মধ্যে অন্তত ১টি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। নভেম্বর মাসে দিন ও রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাবে। তবে এ মাসে গড় তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকতে পারে।

এ মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত হালকা/মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। এ মাসে দেশের প্রধান নদ-নদীসমূহে পানিপ্রবাহ স্বাভাবিক থাকবে। কৃষি আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসে দেশের দৈনিক গড় বাষ্পীভবন ২.৭৫-৩.৭৫ মিলিমিটার এবং দৈনিক গড় সূর্য কিরণকাল ৫.০০- ৬.৫০ ঘণ্টা থাকতে পারে।