চাইল সংস্কার হয়ে গেল বাতিল!

বাংলাদেশ শিক্ষা

সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে কোটা পদ্ধতি নিয়ে গত কিছুদিন ধরে আন্দোলন করছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।  শেষ মুহুর্তে কোটা সংস্কারের এ আন্দোলন দেশব্যাপী ছড়িয়ে পরে।  অংশ নেয় দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের শিক্ষার্থীরা।

রাজপথে আন্দোলনকারীদের অবস্থানের কারণে কার্যত অচল হয়ে পড়ে রাজধানী।  এতে চরম ভোগান্তির শিকার হন সাধারণ মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে বুধবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নত্তোর পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বালিত করার কথা

জানান। তিনি বলেন, কোটা পদ্ধতি যেহেতু কেউই চায় না তাহলে কোনো কোটাই দরকার নেই।

তিনি বলেন, কোটা থাকলে আবারো সংস্কারের দাবি নিয়ে কেউ রাস্তায় নামবে।  আবারো সংস্কার করতে হবে।  অতএব কোটারই দরকার নেই।  সাধারণ মানুষ যেন বার বার ভোগান্তির শিকার না হন সে জন্য কোটা পদ্ধতি একেবারেই বাতিল করা হলো।

তিনি আরও বলেন, মেয়েরাও কোটা বাতিলে রাস্তায় নেমে এসেছে।  তাদের জন্য ১০ ভাগ কোটা ছিলো।  তারাও যেহেতু কোটা পদ্ধতিতে চাকরি চায় না তাহলে এটা রাখারই দরকার নেই।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকাসহ জেলায় জেলায় শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে এসেছে।  এর মানে জেলা কোটারও প্রয়োজন নেই।