জল আর ঘোলা করতে চাই না : দেশে ফিরে অপু

বিনোদন

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস চিকিৎসা শেষ করে দেশে ফিরেছেন। শনিবার রাত ১০টার পর তিনি ঢাকায় পা রাখেন। শারীরিক অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল দাবি করে অপু বলেন, ‘স্রষ্টার কৃপায় ভালোই আছি। চিকিৎসক ওষুধ দিয়েছেন, বলেছেন ভয়ের কিছু নেই। তবে পূর্ণ বিশ্রামে থাকতে বলেছেন। প্রায় মাস দুয়েক আমাকে বিশ্রাম নিতে হবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘হঠাৎ করেই এই দুর্ঘটনার কারণে ‘কাঙাল’ ছবিটি মনে হয় করা হবে না আমার। আর ‘কানাগলি’র শুটিং একটু দেরিতে শুরম্ন হবার কথা থাকলেও সেই সময় পর্যন্ত্ম সেরে উঠতে পারব কিনা তার ওপর নির্ভর করছে সব কিছু।’

ছেলেকে তালাবন্দি করে রাখা প্রসঙ্গে অপু বলেন, ‘এ নিয়ে অনেক জল ঘোলা হয়েছে। নতুন করে আর জল ঘোলা করতে চাই না। তাই এ নিয়ে আর কিছু বলতে চাই না। তবে শাকিব খান বাবা হিসেবে যখন খুশি তখন জয়কে দেখতে আসতে পারেন। জয়ও খুশি হবে বাবাকে কাছে পেলে।’
গত বৃহস্পতিবার রাতে বাথরম্নমে পা পিছলে পড়ে যান অপু বিশ্বাস। আঘাত পান পা, কোমর ও শরীরের বেশ কিছু অংশে। সিজার করা স্থানে রক্তপাতও হয়েছে। বাধ্য হয়েই শুক্রবার সকালে কলকাতায় নিজের ব্যক্তিগত ডাক্তার দেখাতে ঢাকা ছাড়েন তিনি। সঙ্গে ছিলেন না কেউই। ছেলে আব্রাম খান জয়কে রেখে যান বাড়িতেই। জয়কে বাসায় একা রেখে গেছেন অপু এই খবর শুনে ছেলেকে নিজের কাছে আনতে ছুটে যান শাকিব খান। সেখানে গিয়ে তিনি বাসা তালাবন্ধ পান। তাই দেখে নিকেতনের স্থানীয় হাউজিং সোসাইটি কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান তিনি। এরপর বেশ কিছু গণমাধ্যমে শাকিব ছেলেকে তালাবন্দি করে রাখার অভিযোগ করেন অপুর বিরম্নদ্ধে। স্ত্রীকে ‘অসচেতন মা’ বলেও দাবি করেন তিনি। শাকিবের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে পরে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন অপু বিশ্বাস।
গত রোজার ঈদে সর্বশেষ অপু বিশ্বাস অভিনীত ‘রাজনীতি’ ছবিটি মুক্তি পায়। বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত ওই ছবিটিতে অপুর বিপরীতে ছিলেন শাকিব খান ও আনিসুর রহমান মিলন। ছবিটির প্রতিকূল বাজারেও আশা জাগানিয়া ব্যবসা করতে সমর্থ হয়। এরপর অপু ভক্তরা অপেক্ষায় ছিলেন প্রিয় নায়িকা নতুন ছবি নিয়ে শিগগিরই প্রত্যাবর্তন করবেন। সেই ধারাবাহিকতায় ‘কাঙাল’ ও ‘কানাগলি’ নামের দুটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধও হয়েছিলেন অপু। কিন্তু হঠাৎ শারীরিক অসুস্থতায় ভক্তদের অপেক্ষার পালা আরও বেড়ে গেল।
উলেস্নখ্য, শাকিব-অপু ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত্ম একাধারে ৭০টির মতো ছবিতে জুটি বেঁধে একসঙ্গে কাজ করেন। একসময় তারা পরস্পর প্রেমের বাঁধনে জড়িয়ে যান। এরপর ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের পিঁড়িতে বসেন শাকিব-অপু। তাদের একমাত্র সন্ত্মান আব্রাম খান জয়।