ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার এই ইন্ডিয়ান আইডল প্রতিযোগী

বিনোদন

মার্শাল আর্টে দু’বার জাতীয় স্বর্ণপদক পেয়েছেন। এমনকী ইন্ডিয়ান আইডলের প্রতিযোগীও ছিলেন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রিধারী সূর্য বাহাদুর। এত গুণী ছেলের যে আরও একটি ‘গুণ’ রয়েছে তা এত কাল অজানাই ছিল। সূর্যর সেই ‘গুণ’টির সম্পর্কে জানান দিল দিল্লি পুলিশ।

প্রায় দু’ডজন চুরি ও ডাকাতির ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এক শাগরেদ-সহ ২৮ বছরের গায়ক সূর্যকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশ। গত ২১ অক্টোবর দিল্লির রানহোলায় এক ব্যক্তির মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে সোনার চেন, এটিএম কার্ড-সহ মানিব্যাগ ও মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে চম্পট দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। সেই ঘটনার তদন্ত করতে নেমে পুলিশ জানতে পারে সূর্য এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত। শুধু তাই-ই নয়, তিনিই নাকি তিন সদস্যের এক ডাকাত দলের মাথা। বন্ধুমহলে ‘ফাইটার’ নামে পরিচিত এই গায়ক।

ডিসিপি এমএন তিওয়ারি বলেন, “অভিযুক্তরা এক ডজনেরও বেশি চুরি-ডাকাতির কথা স্বীকার করেছে। বেআইনি অস্ত্র থাকার কথাও স্বীকার করেছে অভিযুক্তরা। তাঁদের কাছ থেকে একটি দেশি বন্দুক, ৩২টি কার্তুজ, একটি পেপার স্প্রে এবং একটি স্কুটার উদ্ধার করা হয়েছে।”

অন্য এক শীর্ষস্থানীয় পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, ২০০৮ সালে ইন্ডিয়ান আইডলে অংশ নেওয়া এই প্রতিযোগীর নতুনা ব্র্যান্ডের জামা, জুতোর শখ ছিল। প্রায় প্রতিদিন অভিজাত ক্লাবে যাওয়া-আসা করতেন সূর্য। তাঁর বান্ধবীর সংখ্যাও নেহাত কম নয়। সূর্যর এ সব কীর্তির কথা জানতে পেরে বিরক্ত হয়ে তাঁকে বাড়ি থেকে বের করে দেয় তাঁর পরিবার। এর পর থেকে একাই থাকতেন তিনি। পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তিতে সূর্য জানিয়েছেন, বিলাসবহুল জীবন যাপনের খরচ যোগাতেই এ কাজ করেন তিনি।

Tagged