তবু মাথা উঁচুই রাখছেন জিদান-রোনালদোরা

খেলাধুলা ফুটবল

দুঃসময়ে মাথা উঁচু রাখতে হয়। হতাশায় ভেঙে না পড়ে রাখতে হয় নিজেদের আত্মবিশ্বাস। রিয়াল মাদ্রিদের কোচ, খেলোয়াড়েরা নিয়েছেন সেই নীতিই। তিন দিন আগে লিগে পুঁচকে গিরোনার কাছে হার। রিয়াল সমর্থকরা আশায় বুক বেঁধেছিলেন, হয়তো টটেনহামের বিপক্ষে জিতেই ঘুরে দাঁড়াবে দল। কিন্তু রিয়াল সমর্থকদের সেই আশার দেয়াল ধসে পড়েছে ওয়েম্বলিতে। জয়ের স্বপ্ন নিয়ে মাঠে নামা রিয়াল ৩-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে টটেনহামের কাছে!

হ্যাঁ, বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহামের মতো দলের কাছে বিশ্বসেরা রিয়ালের ৩-১ গোলের হারকে ‘বিধ্বস্ত’ হিসেবেই আখ্যায়িত করেছে বিশ্ব গণমাধ্যম। পাশাপাশি ফুটবলবোদ্ধাদের স্পষ্ট অভিমত, চরম সঙ্কটে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান এবং খেলোয়াড়েরা কিছুতেই এই দুঃসময়কে সঙ্কট ভাবতে রাজি নন। হারের হতাশা চাপা রেখে ম্যাচ শেষে কোচ জিদান স্পষ্টই বললেন, ‘আমরা সঙ্কটে নই।’

চরম এই দুঃসময়ে মাথা উুঁচ রাখছেন অধিনায়ক সার্জিও রামোস, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, লুকা মড্রিচরাও। কোচ জিদানের সঙ্গে সুর মেলাতে চাইলেন তারাও। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো মনে করিয়ে দিতে চাইলেন রিয়ালের সাম্প্রতিক সাফল্যের কথা। লুকা মড্রিচ আত্মবিশ্বাসী, দ্রুতই দাঁড়াবে দল। অধিনায়ক সার্জিও রামোসের কণ্ঠেও উচ্চারিত হলো সেই আশাবাদই।

সঙ্কট না মানলেও রিয়ালের কোচ-খেলোয়াড়েরা স্বীকার করেছেন বড় দুঃসময়ই যাচ্ছে তাদের। তবে মুখে যতই নিজেদের পক্ষে ঢোল পেটান, আত্মবিশ্বাসের কথা বলুন, জিদান-রোনালদো-রামোসরাও যে প্রচণ্ড হতাশ, সেটা ফুটিয়ে তুলছে একটা চিত্রই। ম্যাচ শেষে সাধারণত দলের প্রতিনিধি হয়ে কোচই বিবৃতি দিয়ে থাকেন। কিন্তু টটেনহামের কাছে হারের পর আলাদা আলাদাভাবে কথা বলতে হয়েছে কোচ জিদান, রোনালদো, রামোস, লুকা মড্রিচসহ অনেককেই!

দ্রুতই দুঃসময়কে ছুটি দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে জিদান বলেছেন, ‘আমরা মোটেই সঙ্কটে পড়ে যাইনি। তবে আমরা টানা দুটো ম্যাচ হেরেছি। তার মানে আমরা ভালো অবস্থায় নেই। আমি নিশ্চিত, আমরা ঘুরে দাঁড়াবই। আমরা আজ হেরেছি। কিন্তু মৌসুমটা অনেক লম্বা। তবে হ্যা, আমরা খুবই হতাশ।’

সাম্প্রতিক সময়ে রিয়ালের পাওয়া সাফল্যের দৃষ্টান্ত টেনে রোনালদো বলেছেন, ‘আমরা যা কিছু অর্জন করেছি, মানুষ তা এতো তাড়াতাড়িই ভুলে যেতে পারে না। আমি জানি না, কেন মানুষ এটাকে সঙ্কট বলছে। আমরা তিন-চারটা ম্যাচ হারতেই পারি। তাই বলে এটা সঙ্কট নয়।’

হতাশা চেপে রেখে অধিনায়ক রামোস আঁকালেন প্রত্যাশার ছবি, ‘এই ফল অবশ্যই দৃষ্টিকটু। তবে আমরা ঘুরে দাঁড়াব এবং সেটা খুব দ্রুতই।’ ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার লুকা মড্রিচও গাইলেন প্রত্যাশার গানই, ‘আমরা আগেও কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি এবং তা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। হ্যাঁ, এই হারটা আমাদের জন্য মেনে নেওয়াটা কষ্টের। আমরা তা মেনে নিতে পারছিও না। কিন্তু এটাই ফুটবল। ফুটবলে এমনটা ঘটতেই পারে। তবে রিয়াল মাদ্রিদ সব সময়ই ঘুরে দাঁড়ায়। পরিস্থিতি যত কঠিনই হোক, আমরা ঘুরে দাঁড়াবই।’

সেই দিনটা যিত দ্রুত আসবে, রিয়ালের জন্য ততই ভালো।