তিনি নিজেই সেই শাহরুখ, অন্য কেউ হতে চাইবেন কোন দুঃখে

বিনোদন

সমসাময়িক তারকাদের সাফল্য দেখে যদি তিনি ঈর্ষাণ্বিত হয়ে পড়েন, তবে তার এত খ্যাতি আর তারকার ছটা কোনো কাজে আসবে না। বললেন শাহরুখ খান।

৫১ বছরের অভিনেতাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ২৫ বছরের বেশি সময় বলিউডে কাটিয়ে দেওয়ার পর অন্য অভিনেতাদের সাফল্য দেখে তার ওপর কতটা প্রভাব ফেলে। জবাবে এসআরকে বলেন, তাহলে আর তারকা হয়ে লাভ কী হল, যদি এর পরেও অন্যের খ্যাতির কথা ভেবে মাথা খারাপ করতে হয়! কেন অন্য কারও সম্পর্কে ভাবব, অন্য কারোর সাফল্য নিয়ে মাথা ঘামাব বা নিজেকে অন্যের সঙ্গে তুলনা করব।

তার কথায়, তার কাছে সব কিছু আছে, তাই নিজের আয়না ছাড়া অন্যের দিকে তাকানোর কারণ নেই। বরং অনেকে নিশ্চয় আছেন, যারা শাহরুখ খান হতে চান। তিনি নিজেই সেই শাহরুখ, অন্য কেউ হতে চাইবেন কোন দুঃখে।

বার্তা সংস্থা পিটিআইকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে শাহরুখ বলেন, তিনি যখন বলিউডে আসেন, তার কাছে কিচ্ছু ছিল না। না টাকা, না বাড়ি, ভবিষ্যৎ বলে কিছু নেই, বাবা-মাও মৃত। যা করা উচিত মনে হয়েছিল তখন, তাই করেছেন। হারানোর কিছু ছিল না। কিন্তু এখন তার সব আছে। এখন মনে হয়, কত কিছু হারানোর আছে তার।

অন্য আর একভাবে যদি তাকান, তাহলে মনে হবে, কত কিছু অর্জন করেছেন তিনি। হারানোর চেষ্টা করলেও সব যাবে না।

শাহরুখ খানকে নিয়ে উইকিপিডিয়ায় লেখা রয়েছে, অনানুষ্ঠানিকভাবে এসআরকে হিসাবে ডাকা হয়, একজন বিখ্যাত ভারতীয় অভিনেতা, প্রযোজক, টেলিভিশন উপস্থাপক এবং মানবপ্রেমিক। ১৯৮০ এর শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন সিরিয়ালে অভিনয়ের মাধ্যমে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত দিওয়ানা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন।

এরপর তিনি অসংখ্য বাণিজ্যিকভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং খ্যাতি অর্জন করেন। শাহরুখ খান চৌদ্দবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। এর মধ্যে আটটিই সেরা অভিনেতার পুরস্কার। তিনি বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেতা। হিন্দি চলচ্চিত্রে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০০২ সালে ভারত সরকার শাহরুখ খানকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে।

বর্তমানে শাহরুখ খান পৃথিবীর সফল চলচ্চিত্র তারকা। তার প্রায় ৩.২ বিলিয়ন ভক্ত এবং তার মোট অর্থসম্পদের পরিমাণ ২৫০০ কোটি রুপি-এরও বেশি। ২০০৮ সালে নিউজউইক তাকে বিশ্বের ৫০ ক্ষমতাশীল ব্যক্তির তালিকায় স্থান দেয়।

ওয়েলথ-এক্স সংস্থার বিচারে বিশ্বের সবথেকে ধনী হলিউড, বলিউড তারকার তালিকায় শাহরুখ খান দ্বিতীয় স্থান পেয়েছেন। এক্ষেত্রে তিনি হলিউড তারকা ব্রাড পিট, টম ক্রুজ, জনি ডেপ-দের পিছনে ফেলে দিয়েছেন।

অভিনেতা হিসেবে বৈশ্বিক অবদানের জন্য শাহরুখ খানকে সম্মানসূচক ডক্টরেট উপাধিতে ভূষিত করেছে স্কটল্যান্ডের প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয় এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়।

ভক্তের শেষ ইচ্ছা পূরণ করবেন শাহরুখ
ভারতের অরুণা পিকে ক্যানসারে আক্রান্ত। চিকিৎসক জানিয়েছেন, তিনি ওভারিয়ান ক্যানসারের তৃতীয় ধাপ পার করছেন। মৃত্যুর আগে অরুণার শেষ ইচ্ছা, তিনি শাহরুখ খানের সঙ্গে দেখা করবেন। কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অরুণার এই ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেন তাঁর দুই সন্তান। এরপর মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারের অরুণার ইচ্ছার কথা ছড়িয়ে পড়তে থাকে। বিষয়টি শাহরুখেরও নজরে এসেছে। সম্প্রতি এই তারকা অরুণার শেষ ইচ্ছা পূরণ করতে তাঁর সঙ্গে দেখা করার আশ্বাস দিয়েছেন।

অরুণার দুই সন্তান অক্ষত ও প্রিয়াঙ্কা ‘কিং খান’ শাহরুখকে তাঁদের মায়ের ইচ্ছার কথা জানান। বৃদ্ধ ভক্তের শেষ ইচ্ছার কথা শুনে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন এই তারকা। তিনি টুইটারে তিন মিনিটের একটি ভিডিও বার্তায় অরুণাকে শুভকামনা জানিয়েছেন। শাহরুখ বলেন, ‘আপনার ছেলে অক্ষত ও মেয়ে প্রিয়াঙ্কার কাছ থেকে আমি জানতে পেরেছি, আপনি অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করছেন। আমি আপনাকে একটা কথা জানাতে চাই। আমি, আমার পুরো পরিবার এবং আমাদের যত বন্ধু আপনার ব্যাপারে শুনেছেন, তাঁরা সবাই আপনার সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছেন।’

অসুস্থ অরুণাকে সাহস জোগানোর জন্য শাহরুখ বলেন, ‘অরুণা, আপনি একজন দৃঢ়চিত্তের নারী। আমি আপনার ইচ্ছার কথা, আপনার আনন্দের কথা জেনেছি। আমি জানি, আপনি আমাদের সবার শুভকামনা ও আপনার ইচ্ছাশক্তির বলে শিগগিরই সুস্থ হয়ে উঠবেন। আপনার দুই সন্তান আপনাকে খুব ভালোবাসে। তারাও আশা করে, আপনি জলদি সুস্থ হয়ে উঠবেন।’

২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে অরুণা পিকের ক্যানসার ধরা পড়ে। প্রায় সাত বছর ধরে তিনি ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করছেন। তাঁর সঙ্গে দেখা করার প্রসঙ্গে ভিডিও বার্তায় শাহরুখ বলেন, ‘অরুণা, আপনি এখন এমন এক পরিস্থিতিতে আছেন যে এই মুহূর্তে আপনার সঙ্গে দেখা করা সম্ভব নয়। তবে আপনি কিছুটা সেরে উঠলেই আমি আপনার সঙ্গে অবশ্যই দেখা করতে আসব।’

সরাসরি ভক্তের সঙ্গে দেখা করার আগে চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়ে ফোনে তাঁর সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলার ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেছেন শাহরুখ। হিন্দুস্তান টাইমস।