তিন উইকেট নিয়ে খুলনাকে চাপে রেখেছে চিটাগং

ক্রিকেট খেলাধুলা

বিপিএলের ঢাকা পর্বে শনিবার প্রথমে ব্যাট করা দুই দলই হেরেছে। সেই সূত্র মেনেই কি রোববার টস জিতে খুলনা টাইটান্সকে ব্যাটিংয়ে পাঠালেন চিটাগং ভাইকিংস অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক? উদ্দেশ্য যাই হোক চিটাগংয়ের বোলাররা নিয়মিত আঘাতে বেধে রেখেছেন খুলনার রানের চাকা। শের-এ-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৩ উইকেট হারিয়ে ৬ ওভারে খুলনা তুলেছে ৩৬ রান।

বাঁহাতি স্পিনার সানজামুল ইসলাম জোড়া আঘাত হেনেছেন খুলনার ইনিংসে। প্রথম ওভারেই ওপেনার ওয়ালটন শ্যাডউইককে ফিরিয়ে দিয়েছেন ব্যক্তিগত ৫ রানে। নিজের দ্বিতীয় ওভারেও আরেকটি উইকেট পেলেন সানজামুল। এবার এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরালেন মাইকেল ক্লিঙ্গারকে। খুলনার দলীয় রান তখন ১৩। যদিও টিভি রিপ্লেতে দেখা গেছে বলটি ক্লিঙ্গারের লেগ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে যেত। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে উইকেটটি পান সানজামুল। এরপর ডানহাতি স্পিনার দিলশান মুনাবিরা তার ঘূর্ণিতে বোল্ড করেন ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্তকে। ব্যক্তিগত ৯ রানে আউট হন তিনি। ২৯ রানেই ৩ উইকেট হারানো খুলনা ব্যাট করছে ৩৬ রানে। ৬ ওভারের খেলা শেষ হয়েছে। রাইলি রুশো ১৪ ও মাহমুদউল্লাহ ৩ রানে ব্যাট করছেন।

চিটাগং ভাইকিংস :
মিসবাহ-উল-হক (অধিনায়ক), এনামুল হক বিজয়, সৌম্য সরকার, লুক রনকি, দিলশান মুনাবিরা, লুইস রিস, সিকান্দার রাজা, শুভাশিষ রায়, তানবীর হায়দার, সানজামুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ।

খুলনা টাইটান্স :
মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), শাডউইক ওয়ালটন, মাইকেল ক্লিঙ্গার, নাজমুল হোসেন শান্ত, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, রাইলি রুশো, আরিফুল হক, জফরা আর্চার, মোশারফ হোসেন, শফিউল ইসলাম ও আবু জায়েদ।