ধীর ব্যাটিংয়ে নিজেদেরই চাপে ফেলছে রংপুর

ক্রিকেট খেলাধুলা

১০ ওভারে ৫৭ রান। শাহরিয়ার নাফীস ২৩ বলে ১২ রান। রবি বোপারা ১৫ বলে ১০। ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে খোলসে ঢুকে পড়া রংপুর রাইডার্সের এই বেহাল দশা। টি-টুয়েন্টির সাথে যাচ্ছে না। এমন না যে খুব বিধ্বংসী বোলিং রাজশাহী কিংসের। কিন্তু ভেঙে পড়তে চাইছে না বলেই চাপটা এভাবে নিজেদের ওপর নিয়ে নিল মাশরাফি বিন মুর্তজার দল রংপুর? এই ম্যাচে ড্যারেন স্যামি ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না বলে রাজশাহীকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুশফিকুর রহীম।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় ১১ ওভারের খেলা শেষ হয়েছে। আগের ওভারে ৯, এই ওভারে ৮ রান তুলেছে রংপুর। ৩ উইকেটে ৬৫ রান তাদের। বোপারা ১২ আর নাফীস ১৭ রানে ব্যাট করছেন। দুজনই খুব সতর্ক হয়ে খেলছেন। এতোটাই যে পরের ব্যাটসম্যানের ওপর তা আরো চাপ ফেলে দিতে বাধ্য। কি পরিকল্পনা নিয়ে খেলছে রংপুর ঠিক বোঝা যাচ্ছে না।

এই ম্যাচ দিয়ে শনিবার বিপিএল সিলেট থেকে ফিরেছে ঢাকায়। আর টস জিতে মাশরাফি বেছে নেন আগে ব্যাটিং। কিন্তু সিলেটে এই প্রতিপক্ষের কাছে হারা রাজশাহী ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। ম্যাচের তৃতীয় বলেই মিরাজের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জনসন চার্লস (২)। অ্যাডাম লিথের সাথে মোহাম্মদ মিঠুন সতর্ক হয়ে এগুচ্ছিলেন। কিন্তু চতুর্থ ওভারেই বিপদ আসে। লিথকে ৪ রানে ফিরিয়ে দেন ফরহাদ রেজা। ওটি ওভারে চতুর্থ বল। আর শেষ বলে মিঠুনকে (১৮) শিকার করে ফেলেন ফরহাদ রেজা। ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় রংপুর।