নগ্ন ছবি ছড়িয়ে দেয়া ঠেকাবে ফেসবুক

প্রধান খবর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

প্রেমে মগ্ন জুটি বিভিন্ন মুহূর্তে অন্তরঙ্গ হয়। সেসব মুহূর্তের ছবিও তুলে রাখে। তারপর তাদের মধ্যে প্রেম না থাকলে তারা আবার আলাদা হয়ে যায়। তখন দেখা যায় আগের প্রেমিক বা প্রেমিকাকে হেনস্তা করার জন্য তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ছেড়ে দিয়েছে ওই জুটির একজন।

অস্ট্রেলিয়ার সরকার এবং ফেসবুক রিভেঞ্জ পর্ণ বা কাউকে হেনস্তা করার জন্য অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ছড়িয়ে দেয়া ঠেকাতে একসাথে কাজ করছে। সেখানে সফল হলে ফেসবুক আমেরিকাসহ অন্যান্য দেশেও এমন বদমায়েশি বন্ধ করতে কাজ করবে।

অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনের রিপোর্টে বলা হয়েছে সে দেশের ই-সেফটি অফিস ও ফেসবুক এ ব্যাপারে একসাথে কাজ করছে।

কেউ প্রতিশোধের শিকার হবেন মনে করলে তিনি অন্তরঙ্গ ছবিটি ইন্টারনেট থেকে সরিয়ে ফেলবেন। একই সাথে তিনি ছবিটি চিহ্নিত করে কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে রাখবে।

পরে কেউ ওই ছবি ফেসবুক, মেসেঞ্জার বা ইন্সটাগ্রামে ছড়ানোর চেষ্টা করলে ওই এ-সেফটি অফিস ও ফেসবুক মিলে তা আঁটকে দিবে। কোথাও আর ওই ছবি বা ভিডিও আপলোড করা যাবে না।

ফেসবুকের এক মুখপাত্র জানান, কেউ যদি একটি ছবি তার সম্মতি ছাড়াই তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তাহলে ওই ছবিটি আর আপলোড করা যাবে না। একই সাথে কেউ আপলোড করতে চাইলে তাকে সতর্ক করে দেয়া হবে।

তবে বলাই বাহুল্য যে এই ব্যবস্থা নিতে হলে ভুক্তভোগীকে ওই ছবির বিষয়ে আগে থেকেই জানতে হবে। অর্থাৎ, অনেকেই সম্পর্কের এক পর্যায়ে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের দৃশ্য ধারণ করতে সম্মত হন। কিন্তু পরে তারা সেটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়া বন্ধ করতে চান। সেক্ষেত্রে তিনি এই ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

সূত্র: দ্য ডেইলি বেস্ট