নতুন হিটলারের জবাবে উত্তর এল ‘স্বৈরশাসক’ দিয়ে

আন্তর্জাতিক প্রধান খবর

সৌদি আরবের ডি ফ্যাক্টর নেতা যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আল-খামেনীকে মধ্যপ্রাচ্যের ‘নয়া হিটলার’ বলে মন্তব্য করেছেন।দিন না গড়াতেই ইরান তার এই মন্তব্যের জবাব দিয়েছে। দেশটির দাবি, ‘সৌদি যুবরাজের বয়স পাকে নাই। সে যে নিজেই একজন ‘আঞ্চলিক স্বৈরাচার’ তা কখনও ভেবে দেখে নাই, এটাই তার কপালের ফের।’

সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে আঞ্চলিক সম্পর্কের টানাপোড়েনের মধ্যে সৌদি যুবরাজ নিউইয়র্ক টাইমস-এ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ইরানের সর্বোচ্চ নেতা ‘মধ্যপ্রাচ্যের নয়া হিটলার’।

তিনি আরও বলেন, ‘ইউরোপে যা ঘটে গেছে, মধ্যপ্রাচ্যে যাতে তার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

তার এই বক্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাশেমী বলেন, ‘যুবরাজ বিপজ্জনক, অপরিপক্ক, অবিবেচক এবং কর্তাবার্তা ও আচরণে অসংলগ্ন।’

তিনি বলেন, ‘আমি স্পষ্টভাবে তাকে পরামর্শ দিচ্ছি- বিগত কয়েক বছর থেকে তিনি যে জনপ্রিয় আঞ্চলিক স্বৈরশাসকে পরিণত হয়েছেন এবং তা তার কপালে মন্দ ডেকে আনতে পারে, তা যেন গভীরভাবে চিন্তা-ভাবনা করে দেখেন। রোল মডেল হতে হলে নিজস্ব নীতি ও আচরণ নিয়ে চিন্তা করতে হবে।’

গত ৪ নভেম্বর ইয়েমেন থেকে নিক্ষেপিত একটি ক্ষেপণাস্ত্র রিয়াদ বিমানবন্দরের কাছাকাছি সৌদি নিরাপত্তা বাহিনী আকাশেই ধ্বংস করে দেয়। হুথি বিদ্রোহীরা এ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার দায় স্বীকার করে।

ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর থেকে সৌদি আরব এবং ইরান তিক্ত বাকযুদ্ধে লিপ্ত হয়। সৌদি এই হামলার পেছনে ইরানকে অভিযুক্ত করে। অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে ইরান বলেছে, ইয়েমেনে সৌদির চলমান আগ্রাসনের জবাব দিয়েছে হুথি।