নাইজেরিয়াকেই বেশি ভয় আর্জেন্টিনা কোচের

খেলাধুলা ফুটবল

শুক্রবার রাতে মস্কোর ড্র অনুষ্ঠান পূরণ করে দিয়েছে লিওনেল মেসির প্রাথমিক স্বপ্ন। বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন সুপারস্টার খুব করে চেয়েছিলেন গ্রুপপর্বে ২০১০ বিশ্বকাপজয়ী স্পেনকে এড়াতে। তার সেই আশা পূরণ হয়েছে। মস্কোর ড্রতে ডি গ্রুপে আর্জেন্টিনা সঙ্গী হিসেবে পেয়েছে ইউরোপের দুই দল ক্রোয়েশিয়া, আইল্যান্ড ও আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়াকে।

স্পেনকে এড়াতে পারলেও আর্জেন্টিনার গ্রুপটা তুলনামূলকভাবে একটু কঠিনই। আর্জেন্টাইনরা তো এরই মধ্যে নিজেদের গ্রুপটাকে ‘গ্রুপ অব ডেথ’-এর তকমাই এঁটে দিয়েছে। বাইরের অনেকেও সুর মিলিয়েছে তাদের সঙ্গে। দলীয় শক্তিমত্তা আর খেলার ধরন অনুযায়ী ক্রোয়েশিয়াই হবে গ্রুপপর্বে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ।

কিন্তু ক্রোয়েশিয়াকে নয়, এবারের বিশ্বকাপের ‘চমক’ আইল্যান্ডকেও নয়, আর্জেন্টিনার কোচ হোর্হে সাম্পাওলি বেশি ভয় করছেন নাইজেরিয়াকে। এই তো কদিন আগে রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ৪-২ গোলে হারিয়ে দিয়েছে নাইজেরিয়া।

প্রথমে দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও মেসিবিহীন আর্জেন্টিনা পরে হজম করে ৪ গোল। নাইজেরিয়ার মতো দলের কাছে এমন শোচনীয় হারের পর কোচ সাম্পাওলির যোগ্যতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর সরাসরিই বলেন, সাম্পাওলিরা আর্জেন্টিনাকে ডোবাচ্ছে, সম্মানহানী করছে!

সেই হার থেকেই নাইজেরিয়াকে এতো ভয় আর্জেন্টিনা কোচের? অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে তেমনটাই। নয়তো দুই দলের মুখোমুখি সাক্ষাতের পরিসংখ্যান বলছে, নাইজেরিয়াকে এতো ভয়ের কিছু নেই আর্জেন্টিনার। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে এ পর্যন্ত সব মিলে ৮টি ম্যাচ খেলেছে আর্জেন্টিনা। তার ৫টিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। নাইজেরিয়া জিতেছে দুটিতে।

প্রসঙ্গটা যদি হয় বিশ্বকাপ, আর্জেন্টাইনরা আরও বেশি নির্ভার থাকতে পারছে। কারণ, বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত ৪ বার মুখোমুখি হয়েছে দুদল। তার ৪ বারই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে আর্জেন্টিনা। দু-একবার কাঁপন হয়তো ধরিয়েছে, তবে শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পেরেছে আর্জেন্টাইনরা।

সেই নাইজেরিয়াকে এতো ভয়ের কারণ কি? কারণটা ব্যাখ্যা করেননি আর্জেন্টিনা কোচ। তবে ড্রয়ের পর প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় মেসিদের কোচ স্পষ্টই বলেছেন, ‘নাইজেরিয়া খুবই আনপ্রেডিক্টেবল দল। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে বুঝতে পারবেন না আপনি কেমন করবেন। তারা খুবই বিপদনজনক দল।’

নাইজেরিয়া ভয় করলেও দেশবাসী শিরোপা জয়ের প্রতিশ্রুতিই দিয়েছেন সাম্পাওলি। বলেছেন, ‘আমাদের দেশের সমর্থকদের আমি একটা বিষয় নিশ্চিত করে বলতে পারি, আমরা আর্জেন্টিনাকে গর্বিতই করব। আমার হাতে ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় আছে, এটা বাড়তি সুবিধা।’