নায়ক হতে পারলেন না মুস্তাফিজ

ক্রিকেট খেলাধুলা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ১ উইকেটে হারিয়ে টুর্নামেন্টে শুভ সূচনা পেয়েছে ধোনীর চেন্নাই সুপার কিংস।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করে নির্দিষ্ট ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান সংগ্রহ করেছে মুস্তাফিজুর রহমানের মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।  জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে চেন্নাই।  তারা দলীয় ২৭ রানে ওপেনার শেন ওয়াটসনের উইকেট হারায়।  ১৬ রান করে ওয়াটসন হার্দিক পান্ডিয়ার শিকার হয়েছেন।

মুস্তাফিজ মুম্বাইয়ের জার্সি গায়ে নিজের প্রথম ওভারে ৯ রান দিয়েছেন।  তারপর ৪ রান করা সুরেশ রায়নাকেও ফিরিয়েছেন হার্দিক।  তারপর ২২ রান করা রাইডুকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেছেন মারকান্দে।

চেন্নাই অধিনায়ক ধোনী মারকান্দের বলে একই কায়দায় আউট হয়েছেন।  মুস্তাফিজ দলীয় ১২ তম ওভারের নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে আসেন।  তারপর জাদেজাকে ফিরিয়েছেন এই টাইগার পেসার।

১২ রান করা জাদেজা মুস্তাফিজের বলে সূর্য কুমার যাদভের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন।  তৃতীয় ওভারে মুস্তাফিজ ১৩ রান দিয়েছেন।  চাহার কোনো রান না করেই তৃতীয় শিকার হয়েছেন মারকান্দের।  ৮ রান করা হরভজন সিংকে হার্দিকের ক্যাচ বানিয়ে আউট করেছেন ম্যাকক্লেনাঘান।

১ রান করা মার্ক উড হার্দিক পান্ডিয়ার বলে মুস্তাফিজের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন।  এরপর ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৬৮ রান করা ডুয়াইন ব্রাভোকেও ফিরিয়েছেন তিনি।  শেষ ওভারে জয়ের জন্য ৭ রান দরকার ছিল চেন্নাইয়ের।

শেষ ওভারে বোলিংয়ে আসেন মুস্তাফিজ।  তবে, মাত্র ৫ বলেই ১০ রান দিয়ে ম্যাচ হারিয়ে দেন এই টাইগার পেসার।  ১ বল হাতে রেখে ১ উইকেটের দারুণ জয় দিয়ে শুভ সূচনা পায় চেন্নাই সুপার কিংস।

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি মুম্বাইয়ের।  তারা দলীয় ৭ রানেই ওপেনার এভিন লুইসকে হারায়।  এই ক্যারিবিয়ান কোনো রান না করেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পরেছেন চাহারের বলে।

তারপর দলীয় ২০ রানে অধিনায়ক রোহিত শর্মার উইকেট হারালে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে মুম্বাই।  তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৭৮ রানের জুটি গড়ে সেই বিপর্যয় সামাল দেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইশান কিশান ও সূর্য কুমার যাদভ।  যাদভ ৪৩ রান করে অজি অলরাউন্ডার শেন ওয়াটসনের শিকার হয়েছেন।

ইশান কিশান ৪০ রান করে ইমরান তাহিরের বলে আউট হয়েছেন।  এরপর বাকি সময়টা দেখে শুনে কাটিয়ে দিয়েছেন দুই ভাই হার্দিক পান্ডিয়া ও ক্রুনাল পান্ডিয়া।  হার্দিক ২২ রানে অপরাজিত ছিলেন আর ক্রুনাল ৪১ রানে অপরাজিত থেকে দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দিয়েছেন।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স একাদশঃ রোহিত শর্মা, এভিন লুইস, ইশান কিশান, হার্দিক পান্ডিয়া, ক্রুনাল পান্ডিয়া, কাইরন পোলার্ড, মুস্তাফিজুর রহমান, মিচেল ম্যাকক্লেনাঘান, সূর্য কুমার যাদব, জারস্প্রিত বুমরাহ, মায়াঙ্ক মারকান্দে।

চেন্নাই সুপার কিংস একাদশঃ শেন ওয়াটসন, আমবাথি রাইডু, সুরেশ রায়না, মহেন্দ্র সিং ধোনি, ডোয়াইন ব্রাভো, কেদার জাদভ, রবিন্দ্র জাদেজা, হরভজন সিং, দিপাক চাহর, মার্ক উড, ইমরান তাহির।