নীরবে দাঁড়িয়ে আজান শুনলেন নিউজিল্যান্ডের ক্যান্টারবেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা-(ভিডিও)

আন্তর্জাতিক

আজানের সুমধুর ধ্বনি ভেসে আসছে। নীরবে দাঁড়িয়ে তা শুনছেন শতাধিক ছাত্রছাত্রী। কারো মুখে কোনো কথা নেই। কারো নেই কোনো কাজের ব্যস্ততা। আজান শুনছে সব ধর্ম-বর্ণের মানুষ।

এভাবেই আজান শুনছিলেন নিউজিল্যান্ডের ক্যান্টারবেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়টি ক্রাইস্টচার্চে। গত শুক্রবার ওই শহরেই দুই মসজিদে ঢুকে নির্বিচারে গুলি করে এক দুর্বৃত্ত। ওই হামলায় এখন পর্যন্ত ৫০ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ওই হামলায় নিহতদের স্মরণেই ক্যান্টারবেরি বিশ্ববিদ্যালয়ে এ আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শতাধিক শিক্ষার্থী ওই আজান শোনে। এ-সংক্রান্ত একটি ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা নীরবে দাঁড়িয়ে ওই আজান শুনছেন আর আজানের প্রতি সম্মান দেখাচ্ছেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, আজান চলার সময় নিজেদের মধ্যে একবারও কথা বলেননি বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা।

মসজিদে হামলা: নিহত পরিবারের পাশে দাড়াতে নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন এরদোগান

ক্রাইস্টচার্চে নামাজরত অবস্থায় মুসল্লিদের ওপর শেতাঙ্গ বন্দুকধারীর চালানো স্মরণকালের ইতিহাসে বর্বরোচিত এ হামলার নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে নিউজিল্যান্ড সফর করার আগ্রহ জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।

সোমবার নিউজিল্যান্ড সফররত তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত উকতাই ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লুর সঙ্গে ফোনালাপে তিনি এ আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এ সময় এরদোগান নিহতদের আত্মার মাগফিরাত ও তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। খবর টিআরটির।

নিউজিল্যান্ডের মুসলমানদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে এরদোগান বলেন, নিউজিল্যান্ডের সব মুসলমান আমাদের ভাই। আমি খুব শীঘ্রই আপনাদের দুঃখ ভাগ করে নেতে নিউজিল্যান্ড সফর করবো।

ক্রাইস্টচার্চের ভয়াবহ এ হামলা বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয় জানিয়ে এরদোগান বলেন, এটি অত্যন্ত সুপরিকল্পিত হামলা। এটিকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা ভাবার কোনো অবকাশ নেই। আমরা আন্তর্জাতিকভাবে এর সঠিক তদন্ত দাবি করছি।

গত শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে হামলায় ৫০ জন মুসলমান নিহত হওয়ার পর উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে তুরস্কের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত উকতাই, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু নিউজিল্যান্ড সফরে রয়েছেন।

মুসলিমবিদ্বেষী প্রচার সইতে না পেরে চাকরি ছাড়লেন সংবাদকর্মী

ক্রাইস্টচার্চে হামলার পর স্কাই নিউজের এক জুনিয়র গণসংযোগ কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন। তার অভিযোগ, মুসলমানদের বিরুদ্ধে ভাষ্যকাররা মেরুকরণ ও আতঙ্ক বাড়িয়ে তুলছেন।

স্কাই নিউজ টেলিভিশনের তিন বছর কাজ করেছেন রাশনা ফাররুক। এবিসি অনলাইনকে তিনি লিখেছেন, কোনো কোনো রাতে আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়তাম। এমনকি বাড়ি আসার পথে গাড়ির ভেতরে আমি কান্না করতাম। কারণ নিজের মূল্যবোধের সঙ্গে নিয়মিত আপস করতে হচ্ছে আমাকে।-খবর গার্ডিয়ানের

তিনি বলেন, ক্রমাগত দোষ চাপিয়ে দেয়া একটি ধর্মীয় গোষ্ঠীর একজন সদস্য হিসেবে নিজের মূল্যবোধের সঙ্গে আপস করাই শেষ কথা ছিল না, বরং অনুষ্ঠানগুলোতে মুসলিমবিদ্বেষী প্রচারের কারণেও তিনি নিরুৎসাহিত হয়েছেন।

রাশনা বলেন, যখন ভাষ্যকার ও পণ্ডিতরা মুসলমানদের বিরুদ্ধে দর্শকদের আতঙ্কিত করে তুলতেন, তখন আমি নিজের বিশ্বাস ও মূল্যবোধের সঙ্গে আপস করে অলসভাবে দাঁড়িয়ে থাকতাম। তবে রাশনার লেখা প্রকাশ করায় এবিসি নিউজের সমালোচনা করেছেন স্কাই নিউজের ভাষ্যকার ক্রিস কেন্নি।

রাশনা দাবি করেন, স্কাই নিউজ অস্ট্রেলিয়া মসজিদের ভেতর থেকে ছবি প্রকাশ করেছে। কিন্তু স্কাই নিউজ বলছে, তারা খুনি শ্বেতাঙ্গ জঙ্গির হত্যার দৃশ্যের সরাসরি সম্প্রচারের একটি অংশ প্রচার করেছেন, মসজিদের ভেতর থেকে নয়।

এমনকি যেসব ভাষ্যকারের সাক্ষাৎকার রাশনা ফাররুককে মানসিকভাবে পীড়া দিত, তাদের নাম প্রকাশ করেছেন তিনি। এদের মধ্যে বোরকা নিষিদ্ধের দাবি করে আসা করি বারনাডি, ইট’স ওকে টুবি হোয়াইটের পোলিন হ্যানশন এবং ব্রাউনিয়ন বিশপ রয়েছেন।

এ মুসলিম তরুণী বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় মুসলিম ও অভিবাসীদের হয়ে প্রতিবাদকারী দর্শকদের ফোনের জবাব দিতাম আমি। কিন্তু তারা জানতেন না, ফোনের এ পাশে যে নারী তাদের সঙ্গে আলাপ করছেন, সেও তাদের মতো একজন।

‘যখন ভাষ্যকাররা দেশের প্রতিটি সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ঝাড়ছে, তখন স্টুডিওর অপর পাশের দরজায় দাঁড়িয়ে থাকতাম আমি। তারা দর্শকদের মধ্যে মেরুকরণ ও মানসিক বৈকল্য তৈরি করে যাচ্ছিলেন।’

স্কাই নিউজের ক্যানবেরার পার্লামেন্ট হাউসের একজন গণসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতেন রাশনা ফাররুক। সেখানে তিনি স্টুডিওতে আসা অতিথিদের সহায়তা করতেন।

তিনি বলেন, আমরা যদি ক্রাইস্টচার্চের হত্যাকাণ্ডের দিকে তাকাই, তবে আমাদের গণমাধ্যমে যা ঘটেছে, তাতে কী বাস্তব জীবনের পরিণতি ফুটিয়ে তুলতে পেরেছে। তবে স্কাই নিউজের মুখপাত্র বলেন, আমরা রাশনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। তার ভবিষ্যত কর্মতৎপরতায় সাফল্য কামনা করছি।