‘পদ্মাবতী’কে পশ্চিমবঙ্গে আমন্ত্রণ মমতার

বিনোদন

দেশজুড়ে সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘পদ্মাবতী’ ছবির মুক্তি নিয়ে একটি রাজনৈতিক দলের ইন্ধনে তোলপাড় হচ্ছে। ছবিটির মুক্তির বিরুদ্ধে কয়েকটি রাজ্যে প্রতিবাদ চলছে। গুজরাট, রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, পাঞ্জাবসহ বিভিন্ন রাজ্যে এই ছবি মুক্তির ওপর রাজ্য সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এ-ই যখন পরিস্থিতি, তখন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই রাজ্যে ‘পদ্মাবতী’ ছবি মুক্তি দেওয়ার জন্য এগিয়ে এসেছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে “পদ্মাবতী”কে স্বাগত। কলকাতায়ই হোক “পদ্মাবতী” ছবির প্রিমিয়ার।’ তিনি ‘পদ্মাবতী’র পরিচালকসহ পুরো টিমকে কলকাতায় আসার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। গতকাল শুক্রবার এক আলোচনা সভায় মুখ্যমন্ত্রী এই আমন্ত্রণ জানান।

‘পদ্মাবতী’ ছবিতে দীপিকা পাড়ুকোন

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আগে ২০ নভেম্বর ‘পদ্মাবতী’ নিয়ে এক টুইট বার্তায় বলেছিলেন, ‘পদ্মাবতী নিয়ে বিতর্ক দুর্ভাগ্যজনক। নির্দিষ্ট একটি রাজনৈতিক দল পরিকল্পনা করে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ করছে। আমরা এই পরিস্থিতিকে জরুরি অবস্থার সঙ্গে তুলনা করছি। এ সময় দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একযোগে সরব হওয়া উচিত।’

‘পদ্মাবতী’ নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় রানি পদ্মাবতীর একটি নাচ আর আলাউদ্দিন খিলজির স্বপ্নে রানির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটি দৃশ্য নিয়ে। যদিও পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালি বারবার বলেছেন, দ্বিতীয় দৃশ্যটি ছবিতে নেই। তাতেও ক্ষোভ প্রশমিত হয়নি। বরং বিক্ষোভকারীরা দাবি তুলেছে, ছবির সব বিতর্কিত অংশ বাদ দিতে হবে। তা না হলে এই ছবির মুক্তি দেওয়া হবে না।