পুরো ক্যারিয়ারে একটি আফসুস যেটা এখনও কুড়ে কুড়ে খায় নেহরাকে

ক্রিকেট খেলাধুলা প্রধান খবর

১ নভেম্বর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিতে চলেছেন আশিস নেহরা। যদি দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে খেলার সুযোগ পান তিনি, তবে ওই দিনই দেশের জার্সিতে শেষবার দেখা যাবে এই বর্ষীয়ান তারকাকে।

দেশের হয়ে সব ফরম্যাট মিলিয়ে মোট ১৬৩টি ম্যাচ খেলেছেন নেহরা। বর্ণময় ক্রিকেট জীবনে বহু উত্থান-পতনের সাক্ষী থেকেছেন তিনি। সাফল্য যেমন তাঁর মাথায় মুকুটের মতো বসেছে, কখনও আবার ব্যর্থতার গ্লানিও সহ্য করেছেন বাঁ হাতি এই পেসার। তবে সব মিলিয়ে তিনি খুশি। বিদায়বেলায় কেবল একটিমাত্র আক্ষেপ রয়ে গিয়েছে তাঁর।
সম্প্রতি সে আক্ষেপের কথাই তিনি জানিয়েছেন এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে। আশিস জানান, ‘‘কেরিয়ারের যাত্রাপথটা ছিল দুর্দান্ত। আমি সব দিক থেকেই খুশি। কেবল একটাই খেদ রয়ে গিয়েছে। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে জোহানেসবার্গের সেই বিকেলটা যদি বদলে দিতে পারতাম!’

প্রসঙ্গত, ২০০৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন ভারত অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে গিয়েছিল। প্রথমে ব্যাট করে ৩৫৯ রান তুলেছিল অস্ট্রেলিয়া। বল হাতে ব্যর্থ হয়েছিলেন নেহরা। ১০ ওভারে ৫৭ রান দিলেও কোনও উইকেট পাননি তিনি। ভারতের ইনিংস শেষ হয়ে গিয়েছিল ২৩৪ রানেই। সেই ব্যর্থতা যে এখনও কুরে কুরে খায় নেহরাকে, তা তাঁর কথাতেই স্পষ্ট।