ফোন করে হুমকি, ক্রিকেট ছাড়তে হবে ভারতীয় এই ক্রিকেটারকে !!

ক্রিকেট খেলাধুলা

পৃথ্বী শ্ব—স্কুল ক্রিকেটে রীতিমতো চমকে দিয়েছিলেন ক্রিকেট-বিশ্বকে। খেলেছিলেন ৫৪৬ রানের এক রেকর্ড ইনিংস! এরই ধারাবাহিকতায় জায়গা করে নিয়েছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে। সুযোগ পান এ দলেও। ততদিনে তাকে বড় মঞ্চে খেলতে দেখার অপেক্ষায় ছিল ভারতীয় ক্রিকেট-মহল। অবশ্য অপেক্ষাটা বেশিদিন করতে হয়নি।

মাত্র ১৮ বছর ৩২৯ দিন বয়সে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে অভিষেক ঘটে পৃথ্বীর। ওই টেস্টে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অভিষেকটাও রাঙিয়েছেন এই ওপেনার। অভিষেক সিরিজে তিন ইনিংসে তার ব্যাট থেকে এসেছে ১৩৪, ৭০ আর অপরাজিত ৩৩ রানের ইনিংস। ৩ ইনিংসে ২৩৭ রান করে হয়েছেন সিরিজসেরাও।

ক্রিকেট বিশ্ব মেতে রয়েছে তরুণ এই ভারতীয় ক্রিকেটারের প্রশংসায়। এই তালিকায় রয়েছেন ভারতের সাবেক-বর্তমান ক্রিকেটাররাও। প্রশংসায় পঞ্চমুখ কোচ রবি শাস্ত্রী। টেস্ট সিরিজ শেষে শাস্ত্রী তো বলেই দিয়েছেন, পৃথ্বীর ব্যাটিংয়ে তিন কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ আর ব্রায়ান লারার ছায়া দেখা যায়। অথচ অভিষেকেই তাক লাগিয়ে দেওয়া এই ভারতীয় ক্রিকেটারকেই ফোনে দেওয়া হলো হুমকি, যেন ছেড়ে দেয় এই ক্রিকেটই!

কারণটা অবশ্য অদ্ভুতই বলা যায়। মহারাষ্ট্রে পরিবার নিয়ে থাকেন পৃথ্বী, এখানেই খেলা শিখেছেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, এখান থেকেই জাতীয় দলেও সুযোগ মিলেছে এই ওপেনারের। যদিও তার জন্ম বিহারের মানপুরে। নিজেকে সে পরিচয়ও দেয় বিহারের ছেলে বলেই। আর এতেই খেপেছে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা (এমএমএস)।

হয় নিজেকে পরিচয় দিতে হবে মহারাষ্ট্রের ছেলে বলে অন্যথায় চলে যেতে হবে অন্যত্র এবং সেই সঙ্গে ছাড়তে হবে ক্রিকেটও। রীতিমতো ফোন দিয়ে পৃথ্বীর পরিবারকে এমন হুমকিই দিচ্ছেন মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনারা। রাজ্যসভায় কংগ্রেসের সাংসদ অখিলেশ প্রসাদ সিংহের বরাত দিয়ে এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

পৃথ্বীকে হুমকি দেওয়া প্রসঙ্গে অখিলেশ প্রসাদ বলেন, ‘মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার প্রেসিডেন্ট পৃথ্বীর পরিবারের সদস্যদের ফোন করে হুমকি দিয়েছেন। পৃথ্বী বলেছে বিহারের মানপুরের ছেলে। অথচ ক্রিকেট শিখেছে মহারাষ্ট্র থেকে। এখান থেকেই জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছে। যদি নিজেকে বিহারের বলেই দাবি করে পৃথ্বী, তাহলে আর মহারাষ্ট্রে থাকতে পারবে না।’

অখিলেশ প্রসাদ সিংহের এমন দাবি অবশ্য ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা। দলটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে এমন কথা বলছেন অখিলেশ প্রসাদ। এ নিয়ে পৃথ্বীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সূত্র: প্রিয়.কম