বাঁচতে হলে চেয়ারটা ছাড়ুন

পরামর্শ

আপনি নিশ্চই জানেন সারাদিন বসে কাজ করা শরীরের জন্য ভালো নয়। এটা পিঠে ব্যথার উদ্রেক করে।

কিন্তু গবেষণায় আরো যুক্ত হয়েছে যে, সারাদিন চেয়ারে বসে সময় কাটানো ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, কিডনীরোগ সহ অনেক রোগের অন্যতম কারণ।

সুসংবাদ এটাই, এখন পর্যন্ত কোনো বড় ধরনের সমস্যা অনুভূত না হলে দ্রুত স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিন।

প্রায় ৭৯৮৫ জন প্রাপ্তবয়স্ককে নিয়ে একটা গবেষণা চালানো হয় যারা দিনে ১২ ঘণ্টারও বেশি সময় বসে কাটান। চার বছরের এ গবেষণার মাঝে ৩৪০ জন অংশগ্রহণকারী মৃত্যুবরণ করেন। গবেষণায় বেরিয়ে আসে অতিরিক্ত বসে থাকাটা স্বাস্থ্যঝুঁকির প্রধান কারণ। যারা দিনে অন্তত ১৩ ঘণ্টা বসে কাটান এবং এক ঘণ্টার জন্যেও হাঁটাহাঁটি করেন না, তাদের কম বয়সে মৃত্যুঝুঁকি অনেকটা বেশি।

তাই ডেস্কে চাকরি নেবার পূর্বে নিশ্চিত হয়ে নিন, এই স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবেলা করার মতো সুযোগ সেখানে আছে কিনা। যদি হাটাঁচলা করার মতো পর্যাপ্ত সময় অফিসে না পান, তাহলে মুহূর্তের জন্য হলেও চেয়ার ছেড়ে দাড়ানো মৃত্যুঝুঁকি কমাতে পারে।

গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যারা দেখে গেছে যারা অন্তত প্রতি ৩০ মিনিট পর পর চেয়ার ছেড়ে হাঁটাচলা করেছেন তাদের মৃত্যুঝুঁকি কম ছিল, যারা নড়াচড়া ছাড়াই দীর্ঘ সময় বসে থেকেছেন তাদের তুলনায়- অথচ উভয়ই সমান ঘণ্টা বসে কাজ করেছেন।

সারাদিন বসে কাটিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে ব্যায়াম করলে সেটা ফলপ্রসু হয় না। আপনি কতসময় ধরে হাঁটাচলা করলেন তার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে, কতক্ষণ পর পর করলেন।

প্রতিদিনের কাজের তালিকায় ব্যায়ামকে প্রাধান্য দিন। অ্যানালস অব ইন্টারনাল মেডিসিন জার্নালে প্রকাশিত এ গবেষণাপত্রের প্রধান গবেষক ড. কেইথ ডিয়াজ বলেন, ‘আপনি চাকরি বা জীবনযাপন যদি এমন হয় যেখানে আপনাকে দীর্ঘ সময় বসে থাকতে হয়, তাহলে প্রতি ৩০ মিনিট পর পর নড়াচড়া করা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য অতীব জরুরি। এই একটি অভ্যাস আপনার অকালে মৃত্যুঝুঁকি কমাতে পারে।’

ফোনে অ্যালার্ম দিয়ে রাখুন, যা আপনাকে চেয়ার ছেড়ে উঠে দাড়ানোর সময় স্মরণ করিয়ে দেবে। এ সময় পানি পান করুন কিংবা সহকর্মীর কাছে যান অথবা অফিসের কোনো কর্ণারে হালকা ব্যায়াম সেরে ফেলুন।