বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের বেহাল দশা!

ক্রিকেট খেলাধুলা

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা ছিলেন চরম ব্যর্থ। সেই ভূত বুঝি এখনো তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে টাইগার ব্যাটারদের! তামিম ইকবাল ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না। কিন্তু বিপিএলের সিলেট পর্বের ৮ ম্যাচ শেষে দেখা যাচ্ছে শীর্ষ দশ ব্যাটসম্যানের তালিকায় বিপিএল আয়োজক বাংলাদেশের মাত্র একজন ব্যাটসম্যানের নাম। তাও আট নম্বরে। তাও সেই ব্যাটসম্যান এখন জাতীয় দলের বাইরে।

ওই ৮ থেকে শুরু করতে হয়! ওটাই তো বিপিএলে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের এক নম্বর জায়গা! সেই জায়গাটি রংপুর রাইডার্সের মোহাম্মদ মিঠুনের। ২ ম্যাচে ৬৯ রান করেছেন। চার ম্যাচের দুটিতে ব্যাট করার সুযোগ মিলেছে সিলেট সিক্সার্সের অধিনায়ক নাসির হোসেনের। দুই ইনিংসে তার সংগ্রহ ৬৫ রান। তিনি দ্বিতীয়। এরপর আবার দুজন বিদেশির নাম। তারপর আছেন শাহরিয়ার নাফীস। রংপুরেরই এই ব্যাটসম্যান দুই ইনিংসে করেছেন ৬১ রান।

নাসির জাতীয় দলে নিয়মিত না। নাফীস ডাক পান না। মিঠুন ছিটকে পড়েছেন। ফেরার সুযোগ সহসা দেখা যাচ্ছে না। তাহলে জাতীয় দলের নিয়মিতরা কোথায়? ২ ম্যাচ মিলিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ইমরুল কায়েস এবং চিটাগং ভাইকিংসের সৌম্য সরকার করেছেন সমান ৪৫ রান করে। লিটন দাস শেষ সফরে ছিলেন। ২ ইনিংসে ৪৪ রান তার। এই তিনজন বিপিএলের শীর্ষ ব্যাটসম্যানদের তালিকায় যথাক্রমে ১৯, ২০ এবং ২১ নম্বরে। ২ ম্যাচেই রাজশাহী কিংসের মুমিনুল হক ৩৩, খুলনা টাইটান্সের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ৩১, ঢাকা ডায়নামাইটসের সাকিব আল হাসান ২৪, রাজশাহীর মেহেদী হাসান মিরাজ ২৩, সিলেটের সাব্বির রহমান ৪ ম্যাচে ২১, ঢাকার মোসাদ্দেক হোসেন ২ ম্যাচে ১৬ রান করেছেন। বেহাল দশা বটে!

শীর্ষ দশের তালিকায় এক নম্বরে সিলেটের উপুল থারাঙ্গা। ৪ ম্যাচে তিনটি ফিফটি করেছেন। রান ১৯৬। তারই সতীর্থ আন্দ্রে ফ্লেচার দুই নম্বরে ১৫১ রান নিয়ে। এরপর যথাক্রমে আছেন চিটাগংয়ের লুক রনকি (১১৮), কুমিল্লার মারলন স্যামুয়েলস (৯৫), ঢাকার ইভিন লুইস (৯২), ঢাকার ক্যামেরন ডেলপোর্ট (৮৪), রংপুরের রবি বোপারা (৭৭), সিলেটের দানুশকা গুনাথিলাকা (৬৮), রাজশাহীর লুক রাইট (৬৭)।