বাংলাদেশের সিরিজ হার পাহাড় সমান রানের চাপায় পড়ে

ক্রিকেট খেলাধুলা প্রধান খবর

তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে ১০৪ রানের বিশাল ব্যাবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। আর এই হারে এক ম্যাচ বাকি থাকতে ২-০তে সিরিজ হেরে গেল মাশরাফি বাহিনী। প্রথমে ব্যাট করা দক্ষিণ আফ্রিকার ৩৫৩ রানের পাহাড়সম স্কোরে চাপা পড়ে বাংলাদেশ ৪৭.৫ ওভার শেষে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৪৯ রান করতে সমর্থ হয়।

পার্লের বোল্যান্ড স্টেডিয়ামে এদিন টসে জিতে স্বাগতিক প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে পাঠান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। যেখানে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৫৩ রান করে দলটি। প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান হিসেবে বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেন ডি ভিলিয়ার্স । বাংলাদেশের হয়ে পেসার রুবেল হোসেন সর্বোচ্চ ৪ উইকেট পান।

৩৫৪ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে দলীয় ৪৪ রানের মাথায় ডোয়েইন প্রিটোরিয়াসের বলে বিদায় নেন ওপেনার তামিম ইকবাল। ৭.৪ ওভারে এলবির ফাঁদে পড়ার আগে ২৫ বলে ২৩ রান করেন এ বাঁহাতি। তামিমের বিদায়ের পর দ্রুতই আউট হন লিটন দাশ। তিনি ১৪ রান করে আন্দিল ফেলুকওয়াওয়ের বলে এলবি আউট হন।

ক্যারিয়ারের ১৪তম ওয়ানডে হাফসেঞ্চুরি কর বিদায় নেন ইমরুল কায়েস। স্পিনার ইমরান তাহিরের বলে ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ৭৭ বলে ৬৮ করে ক্যাচ দেন তিনি। পরে তাহিরের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন সাকিব আল হাসান (৫)। ভালো খেলতে থাকা মুশফিকুর রহিম ব্যক্তিগত ৬০ রানে বিদায় নিলেন। ডোয়েইন প্রিটোরিয়াসের বলে ডুমিনিকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ৭০ বলে ৪টি চার ও ১টি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান মুশফিক।

দলীয় ২১৯ রানে ইমরান তাহিরের তৃতীয় ও শিকার হয়ে ফেরেন সাব্বির রহমান। ১৭ রান করে ডু প্লেসিসকে ক্যাচ দেন এ ডানহাতি। আর দলীয় সপ্তম উইকেট হিসেবে বিদায় নেন নাসির হোসেন (৩)। আন্দিল ফেলুকওয়ায়োর বলে সরাসরি বোল্ড হন তিনি। একই ওভারে শূন্য রানে এলবির ফাঁদে পড়েন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ফেলুকওয়ায়ো নিজের নবম ওভারে

৩৫ রান করা মাহমুদউল্লাহকে বোল্ড করেন। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে রুবেল হোসেনকে (৮) বোল্ড করেন ড্যান প্যাটারসন।

এর আগে বিধ্বংসী ব্যাটিং করা এবি ডি ভিলিয়ার্স টাইগার বোলারদের হতাশ করে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২৫তম সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরি করেই থেমে থাকেননি। শেষ পর্যন্ত করেছেন ১৭৬ রানের এক ম্যারাথন ইনিংস। মাত্র ১০৪ বলে ১৫টি চার ও সাতটি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান। পরে পেসার রুবেল হোসেনের বলে সাব্বির রহমানকে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন। আর শেষ ওভারে রুবেল জেপি ডুমিনি (৩০) ও ডোয়েইন প্রিটোরিয়াসকেও (০) তুলে নেন।

৩৬তম ওভারের শেষ বলে ওপেনার হাশিম আমলাকে (৮৫) মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসবন্দি করে ১৩৬ রানের জুটি ভাঙেন রুবেল হোসেন। স্বস্তি ফেরে টাইগার শিবিরে।

দলীয় ১৮তম ওভারে দুই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরান সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় ওয়ানডে তথা এই সিরিজে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম উইকেট শিকার করলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব। ওপেনার কুইন্টন ডি কককে (৪৬) তৃতীয় বলে এলবির ফাঁদে ফেলেন তিনি। এরপর ওভারের শেষ বলে প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসকে (০) সরাসরি বোল্ড করেন সাকিব।

এর আগে কিম্বার্লিতে মুশফিকুর রহিমের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে স্কোরবোর্ডে ২৭৮ রান তুলেও বোলারদের নিদারুণ ব্যর্থতায় অসহায় আত্মসমর্পণ করে টাইগাররা। ওপেনিং জুটিতে ৪৩ বল হাতে রেখে ম্যাচ শেষ করেন দুই সেঞ্চুরিয়ান কুইন্টন ডি কক ও হাশিম আমলা।

এ ম্যাচে জিতে ভারতকে টপকে র্যাংকিংয়ের শীর্ষে ওঠার কথা রয়েছে দ.আফ্রিকার। আগামী

২২ অক্টোবর ইস্ট লন্ডনে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে।