বাংলাদেশে আসতে চান ম্যাকগাইভার, কারণটি খুবি মজার

বিনোদন

আশির দশকের বিখ্যাত টিভি সিরিজ ‘ম্যাকগাইভার’ বাংলাদেশে আসতে চান। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে তার বাংলাদেশি ভক্ত শিপলু রহমান খানকে এমন ইচ্ছার কথা জানান ম্যাকগাইভার চরিত্রে অভিনয় করা রিচার্ড ডিন অ্যান্ডারসন।

শিপলু রহমান খান বলেন, ‘ম্যাকগাইভার বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় চরিত্র। তিনি যেখানেই গেছেন ভক্তদের ভালোবাসা পেয়েছেন। কিন্তু কোন ভক্ত শুধুমাত্র তাকে দেখার জন্য নয় হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশ থেকে সিডনি উড়ে যেতে পারে এটা ছিল তার ভাবনার বাইরে।

এছাড়া বাংলাদেশে তাকে নিয়ে নানান পত্রিকায় ছাপা হওয়া প্রতিবেদন, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক ও মাসিক পত্রিকায় ছাপা হওয়া ফিচারগুলো দেখে অবাক হন। এতটা উন্মাদনা তাকে ঘিরে বাংলাদেশের মানুষ দেখিয়েছেন অজানা ছিল ম্যাকগাইভারের। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে ম্যাকগাইভারকে নিয়মিত চিঠি পাওয়াতেও অবাক হয়েছেন তিনি।’

এসব নিজ চোখে দেখতে বাংলাদেশে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ম্যাকগাইভার খ্যাত অভিনেতা রিচার্ড ডিন অ্যান্ডারসন। এমনটাই তিনি জানিয়েছেন তাকে দেখতে  যাওয়া শিপলু রহমান খানকে।

ছোটবেলায় বিটিভিতে ম্যাকগাইভার দেখে রিচার্ড ডিন অ্যান্ডারসনের ভক্ত বনে যান শিপলু। সংগ্রহ করেন তার ঠিকানা। লিখতে থাকেন চিঠি। একসময় ফিরতি চিঠি আসতে শুরু করে। শিপলুকে চিঠি লেখেন রিচার্ডের ম্যানেজার। ম্যাকগাইভার অটোগ্রাফসহ ছবিও পাঠান বাংলাদেশি এই ভক্তকে।

১৯৮৫ সাল থেকে শুরু করে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত মোট ৭টি সিজনে ১৩৯টি পর্বে যুক্তরাষ্ট্রের এবিসি চ্যানেলে প্রচার হয় ম্যাকগাইভার। সেসময় বিটিভির মাধ্যমে বাংলাদেশের দর্শকরা সিরিজটি দেখার সুযোগ পান। হাতের কাছে যা পান তাই দিয়ে বিজ্ঞানের সূত্র প্রয়োগ করে ম্যাকগাইভার শক্রদের ঘায়েল করেন। চরিত্রটি বাংলাদেশে এতটাই জনপ্রিয়তা পায় যে লেখার খাতা, ভিউকার্ড, পোস্টারে ম্যাকগাইভারের ছবি দখল করে নেয়।

স্কুল কলেজে আলোচনার বিষয়ও হয়ে দাঁড়ায় ম্যাকগাইভার। তখন এই টিভি সিরিজ ছিল ছোট-বড় সকলের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি সিরিজ। ১৯৯০ সালের ব্যাপক জনপ্রিয়তার কারণে বিটিভি ২০১০ সালে আবারও বাংলায় ডাবিং করে প্রচার করে। তখনও জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করে ‘ম্যাকগাইভার’!