বিপিএল এ সাত বলে ওভার!

ক্রিকেট খেলাধুলা প্রধান খবর
ক্রিকেটার থেকে শুরু করে মাঠ, খেলার নিয়ম সবই আন্তর্জাতিক মানের। তাই আম্পায়ারিংও আন্তর্জাতিক মানের হওয়ার কথা। কিন্তু চলতি বাংলাদেশে প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ঘটল পাড়ার ক্রিকেটের ঘটনা। সাত বলে দেওয়া হল ওভার। বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি ছয় বল করে আম্পায়ারের কাছে ক্যাপ আনতে গিয়ে জানতে পারলেন, আরও নাকি একটি বল আছে।
মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জুহর আহমেদ চৌধরী স্টেডিয়ামে রংপুর রাইডার্সের মুখোমুখি হয় সিলেট সিক্সার্স। রংপুর তখন ১৭৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছিল। ১৬তম ওভার করতে যান কামরুল ইসলাম রাব্বি। আম্পারিংয়ে ছিলেন মাহফুজুর রহমান লিটু। সব সময়ই গুনেগুনে বল করা করা রাব্বি ওভার শেষ করে ক্যাপ নিতে গিয়ে জানলেন, আরও এক বল বাকি।
কিন্তু আম্পায়ারকে ছয় বল করার কথা রাব্বি গিয়ে জানান। অন ফিল্ড আম্পায়ার মাহফুজুর রহমান লিটু থার্ড আম্পায়ার গাজী সোহেলের সাথে কথা বলা জানান, আরেকটি বল আছে। এ বিষয়ে রাব্বি বলেন, ‘আমি গুনেগুনে বল করি। ছয় বল হওয়ার পর আমি আম্পায়ারকে গিয়ে বলি আমার ছয় বল হয়ে গেছে। আম্পায়ার বলেন, না এক বল বাকি আছে। তখন আমি বলি, আপনি চেক করেন। উনি চেক করে থার্ড আম্পায়ারকে ফোন দেন। থার্ড আম্পায়ার উনাকে বলেছেন এক বল বাকি আছে। পরে আরেকটি বল করতে হয় আমাকে।’
এ নিয়ে রাব্বি আরও বলেন, ‘আমি আম্পায়ারকে বলেছিলাম। থার্ড আম্পায়ার মেইন আম্পায়ারকে বলেছেন, এক বল বাকি আছে। ওই সময় অনফিল্ড আম্পায়ার ছিলেন মাহফুজুর রহমান লিটু ভাই। থার্ড আম্পায়ার কে ছিলেন সেটা আমি জানি না।’ এ বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে ম্যাচ রেফারির কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে সিলেট সিক্সার্স। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট সিক্সার্সের মিডিয়া ম্যানেজার তামজিদ কানন।
ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সিলেট সিক্সার্সের স্পিনার নাবিল সামাদও একই কথা বলেছেন। অভিযোগের সুরে বাঁহাতি এই স্পিনার বলেন, ‘রাব্বি কিন্তু আম্পায়ারকে বলেছিল, আমার ওভার শেষ হয়ে গেছে। উনি থার্ড আম্পায়ারের কাছে ক্রস চেক করেছেন কি না আমি নিশ্চিত না। কারণ, আমি ছিলাম অন্য জায়গায়। পরে শুনতে পাই, একটা বল বেশি হয়েছে। আমরা বিসিবিকে বলেছি, এখন বিসিবি এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।’