বিশ্বের যে কোনও প্রান্তে আঘাত করবে চিনের নয়া মিসাইল DONGFENG-41

আন্তর্জাতিক প্রধান খবর

বিশ্ব জুড়ে মিসাইলের রেঞ্জ বাড়িয়ে চলেছে বিভিন্ন দেশ। শত্রুপক্ষে আঘাত হানতে প্রস্তুতি নিচ্ছে বিশ্বের তাবড় সব সামরিক শক্তি। এর মধ্যেই চিন তৈরি করল এমন একটি অন্তর্দেশীয় ব্যালিস্টিক মিসাইল যা বিশ্বের যে কোনও জায়গায় আঘাত করতে পারে। আগামী বছরের শুরুতেই সেই শক্তিশালী মিসাইল চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মির হাতে আসবে বলে জানা গিয়েছে।

Dongfeng-41 নামে নয়া এই মিসাইলের গতি ৭৬০০ মাইল প্রতি ঘণ্টা। সামনে প্রতিপক্ষের মিসাইল সিস্টেমকেই ধ্বংস করে দিতে পারে এই মিসাইল। ২০১২ থেকে মোট আটবার ওই মিসাইল পরীক্ষা করা হয়েছে। গ্লোবাল টাইমসের রিপোর্ট বলছে, পরীক্ষায় সফল হওয়ায় আগামী বছরের প্রথমার্ধেই এটি ব্যবহার করতে পারবে চিন সেনা।

Dongfeng-41 একটি ত্রিস্তরীয় সলিড ফুয়েল মিসাইল। এর রেঞ্জ ১২০০০ কিলোমিটার। অর্থাৎ এটি চিন থেকে বিশ্বের যে কোনও জায়গায় নিক্ষেপ করা সম্ভব। এটি ১০টি নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড বহনে সক্ষম। চিনা সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, শেষবার নভেম্বরেই চিনের পশ্চিমের মরু অঞ্চলে ওই মিসাইল পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে ঠিক কবে ও কোথায় এই পরীক্ষা হয়েছে, তা জানানো হয়নি। এর আগে ২০১৬-র এপ্রিলে এক মার্কিন স্যাটেলাইটে এই মিসাইল টেস্ট করার ছবি ধরা পড়ে।

এই মিসাইল ব্যবহার করলে চিনের পরমাণু শক্তি কয়েকগুণ বাড়বে বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। রাশিয়ান বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, আমেরিকাকে টার্গেট করতেই চিন ওই মিসাইল তৈরি করেছে, কারণ ওই মিসাইল আমেরিকা ও ইউরোপকে টার্গেট করতে পারবে।

চিনের কাছে বিভিন্ন রেঞ্জের মিসাইল রয়েছে। যার মধ্যে আছে Dongfeng-26 ব্যালিস্টিক মিসাইল, Dongfeng-21D অ্যান্টি-শিপ ব্যালিস্টিক মিসাইল, Dongfeng-16G ইত্যাদি। নয়া মিসাইল আসায় চিনের নিরাপত্তা বাড়বে কয়েক গুণ।