বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে কলকাতার শুভ সূচনা

ক্রিকেট খেলাধুলা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে রোববার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে ৪ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে এবারের আসরে শুভ সূচনা পেয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

বেঙ্গালুরুর দেয়া ১৭৭ রানের লক্ষ্য তারা ৭ বল হাতে রেখেই পেরিয়ে যায়।  বেঙ্গালুরুর দেয়া মাঝারি রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কলকাতার।  তারা দলীয় ১৬ রানেই অপেনার ক্রিস লিনের উইকেট হারায়।

লিন ৫ রান করে ক্রিস ওকসের বলে ডি ভিলিয়ার্সের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন।

তারপর রবিন উথাপ্পাকে নিয়ে ৪৪ রানের জুটি গরেন সুনীল নারিন।  নারিন দলীয় ৬৫ রানে মাত্র ১৯ বলে ৫০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট হয়েছেন।

উথাপ্পা ফিরেছেন মাত্র ১৩ রান করে।  দারুণ খেলতে থাকা নিতিশ রানা ৩৪ রান করে ফিরেছেন  সাজঘরে।  রিংকু সিং ৬ রান করে আউট হয়েছেন আর ১৫ রান করেছেন আন্দ্রে রাসেল।

বাকি সময়টা দেখে শুনে পার করে দিয়েছেন দীনেশ কার্তিক ও ভিনয় কুমার।  দীনেশ কার্তিক ৩৫ রান করে অপরাজিত  ছিলেন আর ভিনয় কুমার ৬ রান করে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন।

এর আগে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৬৭ রান সংগ্রহ করে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।  এবি ডি ভিলিয়ার্স সর্বোচ্চ ৪৪ ও ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম ৪৩ রান করেন।

ভিনয় কুমারের করা ইনিংসের প্রথম বলেই চার হাঁকিয়ে ইনিংস শুরু করেন ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম।  পরে আরো একটি করে ছক্কা ও চার হাঁকিয়ে প্রথম ওভারেই ১৪ রান সংগ্রহ করেন।

আরেক ওপেনার কুইন্টন ডি কক মাত্র ৪ রান করে আউট হয়েছেন।  দলীয় ১৮ রানে ডি কক ফিরে যাওয়ার পর ম্যাককালাম আউট হয়েছেন দলীয় ৬৩ রানে।  ২৭ বলে ২ ছক্কা ও ৬ চারে ৪৩ রান হয়েছে ম্যাককালামের ব্যাট থেকে।

এরপর বিরাট কোহলি ও এবি ডি ভিলিয়ার্স তৃতীয় উইকেটে যোগ করেন ৬৪ রান।  কোহলি ৩৩ বলে ৩১ ও ডি ভিলিয়ার্স ২৩ বলে ৪৪ রান করেছেন।  ছয় নম্বরে নেমে মানদ্বিপ সিং ১৮ বলে ২ ছক্কা ও ৪ চারে করেন ৩৭ রান।

ফলে লড়াইয়ের পুঁজি পায় বেঙ্গাকুরু।  কলকাতার হয়ে ভিনয় কুমার ও নিশিত রানা সর্বোচ্চ ২টি করে উইকেট নিয়েছেন।  ১ টি করে উইকেট নিয়েছেন পিযুষ চাওলা।  সুনীল নারিন ও মাইকেল জনসন।