ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নিজের গ্রামে এখনো সবার টয়লেট নেই!

আন্তর্জাতিক
ভারতে ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হবার পর বলেছিলেন ‘ক্লিন ইন্ডিয়া মিশনের’ কথা। ভারতের সব বাড়িতে টয়লেট থাকতে হবে। মোদীর জন্ম হয়েছিল গুজরাটের মেহসানা জেলার ভাদনগর গ্রামে। এই গ্রামকে এখন ঐতিহাসিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন স্থান হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে।
কিন্তু মোদী তিন বছর প্রধানমন্ত্রীত্বের পরও সেই গ্রামে কি বাড়িতে টয়লেট হয়েছে?  বিবিসি হিন্দির প্রিয়াংকা দুবে সেই গ্রাম ঘুরে দেখেছেন। সেখানকার মহিলাদের এখনো একটাই চাওয়া। তাহলো একটি টয়লেট।
‘আমাদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল যে আমরা মাথার ওপর ছাদ আর টয়লেট পাবো। কোনোটাই পাইনি’, বলেন ওই গ্রামের নির্মলা বেন।
তার কথা, মোদীর সরকার কথা রাখেনি। মণি বেন নামের এক বয়স্ক মহিলা একটি লাল টিনের ক্যান তুলে দেখালেন। এটিতে পানি ভরেই প্রতিদিন তাকে মাঠে যেতে হয়। রোহিত ভাসে এখনো পুরুষ ও মহিলাদের জন্য দুটি পৃথক মাঠ আছে মলত্যাগের জন্য। বোঝা গেল, ভারতের সরকার গ্রামে গ্রামে টয়লেট তৈরির জন্য যে এক কোটি ৯ লাখ রুপি বরাদ্দ করেছে তা প্রধানমন্ত্রী মোদীর নিজের গ্রামেই পৌঁছায়নি।
সূত্র: বিবিসি