ভোটেও এগিয়ে জেসিয়া

বিনোদন

চীনে চলছে মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতা। মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় দর্শক ভোটে সেরা তিনে অবস্থান করছেন বাংলাদেশের প্রতিনিধি জেসিয়া ইসলাম। বাংলাদেশের প্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার পর জেসিয়া ইসলাম এখন লড়ছেন সারা বিশ্ব থেকে নির্বাচিত হওয়া ১২০ দেশের প্রতিযোগীর সঙ্গে।

মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় দর্শকদের অংশগ্রহণ বাড়াতে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ। এ প্রক্রিয়ায় এরইমধ্যে ১৫.১৫ শতাংশ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন জেসিয়া।

দর্শক বিচারে শীর্ষ তিনের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন তিনি। শীর্ষ তিন প্রতিযোগী হলেন- নেপালের নিকিতা চন্দ্রক (১৯.৮৮), বাংলাদেশের জেসিয়া ১৫.১৫ ও মঙ্গোলিয়ার এনখজিন (১১.১৬)। চতুর্থ দেশ ব্রাজিল (৪.৮৮) ও পঞ্চম স্থানে আছে ভেনিজুয়েলা (৫.৯)। ভোটিংটি মিস ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এটি নিয়মিত প্রকাশ করছে।

বাংলাদেশিরাও চাইলে জেসিয়াকে ভোট দিতে পারবেন। এজন্য প্রথমে মিস ওয়ার্ল্ডের ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। কিংবা ওয়েবসাইটের জেসিয়ার পেইজে গিয়ে আগে নিবন্ধন (উপরের ডান দিকে) করে নিচের অপশনে ভোট দিতে পারবেন। এর লিংক হল – ভোট ফর জেসিয়া

প্রাপ্ত ফল থেকে খুঁজে নেওয়া হবে শীর্ষ ৪০ প্রতিযোগীকে। ১২০ দেশের প্রতিযোগীকে মোট ২০টি দলে ভাগ করা হয়েছে। জেসিয়া আছেন গ্রুপ সিক্সে। সেখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আছেন কানাডা, ইথিওপিয়া, বতসোয়ানা, ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকার সুন্দরীরা।

নানা পর্ব পেরিয়ে বর্তমানে ‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’ পর্বে অবস্থান করছেন জেসিয়া ইসলাম। সম্প্রতি চীনের শিমেলং ওশান কিংডমের পানির নিচের অ্যাকুরিয়ামে ‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’ পর্বের আয়োজন করা হয়। সাবলীলভাবে উপস্থাপকদের প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন পুরান ঢাকার এ তরুণী।

প্রশ্নোত্তর পর্ব শুরুর আগে জেসিয়াকে নিয়ে নির্মিত একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়। তথ্যচিত্রে তিনি বলেছিলেন, নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করতে চাই। সে সূত্র ধরেই তাকে প্রশ্ন করা হয়, কীভাবে কাজটি করতে চান?

জেসিয়া বলেন, “নারীদের জন্য একটি সংগঠন করতে চাই। যেটি সুবিধাবঞ্চিত নারীদের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রশিক্ষণ দেবে।”

পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নেতিবাচক দিক নিয়ে জানতে চাওয়া হলে জেসিয়া বলেন, “ভালো-মন্দ দুটো দিকই আছে। চাইলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে দারুণভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে। কিন্তু এখনকার তরুণ-তরুণীরা এর অপব্যবহার করছে।”

‘হেড টু হেড চ্যালেঞ্জ’-এর পাশাপাশি এবার প্রতিযোগীদের ‘টপ মডেল’, ‘ট্যালেন্ট’, ‘মাল্টিমিডিয়া’, ‘স্পোর্ট’, ‘বিউটি উইথ আ পারপাস’ বিভাগে লড়তে হবে। ১৮ নভেম্বর স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় চীনের সানাইয়া শহরে শুরু হবে ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ডের চূড়ান্ত অনুষ্ঠান।