যা ঘোটতে চলেছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটে

ক্রিকেট খেলাধুলা
পুরোই পাল্টে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের চেহারা
বাছাই পর্ব থেকেই ছিটকে যেতে হলো জিম্বাবুয়েকে।  টেস্ট খেলুড়ে দেশ হওয়া সত্ত্বেও মাত্রই স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানদের পেছনে পড়তে হলো তাদেরকে।  বাছাই পর্ব থেকে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে আফগানিস্তান এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।  জিম্বাবুয়ে ব্যর্থ হওয়ার কারণে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড অধিনায়ক এবং কোচের প্রতি আল্টিমেটাম ছুঁড়ে দিয়েছে পদত্যাগের জন্য।  শুক্রবার বিকাল ৩টা পর্যন্ত সময় বেধে দেয়া হয়েছে তাদেরকে।  পুরোই পাল্টে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটের চেহারা।
বেধে দেয়া সময় শেষ হওয়ার পরই ধারণা করা হচ্ছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড অধিনায়ক এবং পুরো কোচিং প্যানেলকে বহিস্কার করবে।  জিম্বাবুয়ে মিডিয়ায় নানাভাবে উঠে আসছে, যদি অধিনায়ক হিসেবে ব্রেন্ডন টেলরকে দায়িত্ব দেয়া হতো, তাহলে নিশ্চিত জিম্বাবুয়েই খেলতো আগামী বিশ্বকাপ। জিম্বাবুয়ে কোচিং প্যানেলের মধ্যে রয়েছেন, প্রধান কোচ হিথ স্ট্রিক।  যিনি বাংলাদেশে এক সময় পেস বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।  সঙ্গে রয়েছেন ব্যাটিং কোচ ল্যান্ড ক্লুজনার, বোলিং কোচ ডগলাস হোন্ডো, ফিল্ডিং কোচ ওয়াল্টার চাওয়াগুটা, ফিটনেস কোচ শিন বেল এবং টিম অ্যানালিস্ট স্ট্যানলি চিওজা।  এছাড়াও বহিস্কার হতে যাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের কোচ ওয়েন জেমস এবং অনুর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ স্টিফেন ম্যাঙ্গোঙ্গো।  একই সঙ্গে নির্বাচক মন্ডলির প্রথম আহ্বায়ক তাতেন্দা টাইবুকেও তার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে হিথ স্ট্রিকের কাছে পাঠানো মেইলে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের এমডি ফয়সাল হাসনাইন লেখেন, ‘আমাদের পরবর্তী আলোচনার আগে, আপনাকে আগামীকাল (শুক্রবার) বিকাল ৩টা পর্যন্ত সময় দেয়া হলো আপনি এবং আপনার পুরো কোচিং প্যানেল পদত্যাগ করবেন।  বেধে দেয়া এই সময়ের পর টেকনিক্যাল টিমকে বহিস্কার করা হবে এবং সঙ্গে সঙ্গেই তাদের এই বহিস্কারাদেশ কার্যকর হয়ে যাবে। ‘

যদিও হিথ স্ট্রিক এবং তার কোচিং প্যানেল কোনোভাবেই পদত্যাগ করতে রাজি নন।  কারণ, তাদের যুক্তি বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের খেলতে না পারার দায় পুরোপুরি তাদের নয়।