যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাক হামলায় নিহত ৮, আটক ১

আন্তর্জাতিক প্রধান খবর

নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের একটি রাস্তায় ট্রাক তুলে দিয়ে ৮ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এ সময়ে কমপক্ষে আরও ১২ জন আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৫ জন আর্জেন্টিনার নাগরিক বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর। আহতদের মধ্য ১০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা গুরুতর।

হামলার পর ট্রাক থেকে পালানোর সময় সাইফুল্লা হাবিবুলেভিক সাইপোভ (২৯) নামের এক যুবককে গুলি করার পর গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, সাইফুল্লা উজবেকিস্তান থেকে আসা অভিবাসী। সে ফ্লোরিডায় থাকতো।

সন্দেহভাজন হামলাকারী সাইফুল্লা হাবিবুলেভিক সাইপোভ

 

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বেলা তিনটার দিকে ভাড়া করা একটি ট্রাক নেয় সাইপোভ। এরপর সে ম্যানহাটনের পশ্চিম দিক থেকে মূল রাস্তার বাইক লেনে প্রবেশ করে পথচারীদের ওপর ট্রাক তুলে দিতে থাকে। এ সময় লোকজন রাস্তার পাশে ছিটকে পড়তে থাকে। পরে চেম্বার স্ট্রিটের মোড়ে একটি স্কুলবাসের সঙ্গে ট্রাকটির ধাক্কা লাগে।
এরপর গাড়ি থেকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে বেরিয়ে আসে সাইপোভ। পরে জানা যায়, তার কাছে থাকা অস্ত্র দু’টি ছিলো খেলনা বন্দুক। এ সময় টহল পুলিশের করা গুলি সাইপোভের পেটে লাগে। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার সাইপোভের পেটে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। হামলা চালাতে ব্যবহার করা ট্রাকে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। যাতে লেখা, ইসলামিক স্টেটের (আইএস) পক্ষ থেকে এ হামলা।

পুলিশ জানায়, ২০১০ সালে উজবেকিস্তান থেকে আমেরিকায় অভিবাসী হয় সাইফুল্লা হাবিবুলেভিক সাইপোভ। ম্যানহাটনে হামলার প্রস্তুতির জন্য সম্প্রতি তিনি ফ্লোরিডা থেকে নিউজার্সির প্যাটার্সন এলাকায় থাকতে শুরু করেন।

হামলার পর নিউইয়র্কের মেয়র, গভর্নর ও পুলিশপ্রধান দ্রুত ঘটনাস্থলে যান। নিউইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও বলেন, এটি খুবই কাপুরুষোচিত সন্ত্রাসী হামলা। এটি আমাদের শক্তিকে নষ্ট করার চেষ্টা। কিন্তু নিউইয়র্কবাসীরা খুবই শক্তিশালী ও ধৈর্যশীল। এমন সন্ত্রাসের কাছে আমাদের অগ্রযাত্রা কখনোই থেমে যাবে না।

এ ঘটনার পর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দু’টি টুইট করেছেন। একটিতে তিনি বলেন, হামলার ধরন দেখে মনে হচ্ছে, খুবই অসুস্থ ও বিপদজনক কেউ এটি চালিয়েছে। অপর টুইটে তিনি বলেন, আইএস জঙ্গিগোষ্ঠীকে মধ্যপ্রাচ্য বা অন্যত্র হারিয়ে দেওয়ার পর তাদের কোনো মতেই যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস, রয়টার্স ও বিবিসি।