যেভাবে মোস্তাফিজদের বিপদে ফেললেন পেট কামিন্স!

ক্রিকেট খেলাধুলা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) একাদশ আসরে শুরুটা ভাল করতে পারেনি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। জিততে জিততে হেরে গেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। সেই ধাক্কা সামলে উঠার আগেই আরও একটি দুঃসংবাদই পেল মোস্তাফিজরা। অস্ট্রেলিয়ান সতীর্থ প্যাট কামিন্সকে হারাতে হলো মুম্বাইকে। পিঠের ইনজুরির কারণে আইপিএলের চলতি আসর থেকে ছিটকে গেছেন অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলার।

পিঠের এই সমস্যা নিয়ে কামিন্স দীর্ঘদিন ভুগছেন। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চতুর্থ ও শেষ টেস্টে ইনজুরির মাত্রাটা বেড়ে যায়। অস্ট্রেলিয়ান দলের ফিজিওথেরাপিস্ট ডেভিড বিকলি ফলো-আপ স্ক্যানে মেরুদন্ডের হাড়ে সমস্যা দেখতে পেয়েছেন। এ সম্পর্কে বিকলি বলেছেন, এই ধরনের সমস্যায় গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে বিশ্রাম। প্যাটকে এখন বোলিং করা থেকে বিরত থাকতে হবে। এ কারনেই তাকে আইপিএল থেকে দেশে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে চুক্তিবদ্ধ হলেও আইপিএল’র এবারের আসরে প্রথম ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে কামিন্সের মাঠে নামা হয়নি। সাম্প্রতিক এই সমস্যার কারনে জুনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ও একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও তার খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। বিকলি জানিয়েছেন, প্যাটকে এখন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকতে হবে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তার সুস্থতা নির্ণয়ে আবারো স্ক্যান করা হবে। এরপরই জানা যাবে কবে নাগাদ প্যাট খেলায় ফিরতে পারবেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে অস্ট্রেলিয়া ৩-১ ব্যবধানে পরাজিত হলেও কামিন্স ২২টি উইকেট দখল করেছেন। বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগে বিতর্কিত এই সিরিজে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে দেশে ফেরত পাঠানো হয় ও পরবর্তীতে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। তাদের অনুপস্থিতিতে কামিন্সের মধ্যে ভবিষ্যতে দলকে নেতৃত্ব দেবার সব ধরনের সম্ভাবনা দেখা গেছে।