যে কারণে কোহলিকে ডিভোর্স দিতে আনুশকা শর্মাকে অনুরোধ সমর্থকদের

ক্রিকেট খেলাধুলা

ভাগ্যের ফেরই বলা চলে। আনুশকা শর্মা মাঠে থাকা অবস্থায় বেশ কিছু ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ভুল শট খেলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন বিরাট কোহলি। যার জের ধরে দেশটির ক্রিকেট সমর্থকদের রোষ গিয়ে পড়েছে গ্যালারিতে থাকা তার স্ত্রী আনুশকার ওপর। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি আসরেও একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি ঘটল। এবার অবশ্য কোহলির ব্যর্থতার জন্য নয়, বরং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু হেরে যাওয়ায় সমর্থকদের তোপের মুখে পড়েছেন ভারতীয় অধিনায়কের স্ত্রী আনুশকা শর্মা।চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও চেন্নাই সুপার কিংস। ২০৫ রানের বিশাল সংগ্রহ স্কোর কার্ডে জমা করেও চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির তাণ্ডবে পাঁচ উইকেটে হারে কোহলির দল। ম্যাচটি গ্যালারিতে বসেই উপভোগ করেছিলেন কোহলি-পত্নী আনুশকা।ম্যাচ শেষ হতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমর্থকদের নানা কটাক্ষ উক্তি হজম করতে হচ্ছে আনুশকাকে। কেউ কেউ তো বলেই দিয়েছেন, ‘আনুশকা শর্মা, প্লিজ আর মাঠে এসো না।’ আরেকজনের মতে, আনুশকা কোহলির জন্য অপয়া, তাই ডিভোর্সই নিয়ে নেওয়া উচিত এই জুটির।কানাতুঙ্গা নামের সেই সমর্থক লিখেছেন, ‘এই ম্যাচ দিয়ে প্রমাণ হয়ে গেল, ধোনি এখনো বুড়িয়ে যাননি। একই সঙ্গে এটাওপ্রমাণিত যে, আনুশকা কোহলির জন্য লাকি নন। তাই কোহলির উচিত তাকে ডিভোর্স দেওয়া।’ আরেক সমর্থক লিখেছেন, ‘আনুশকা, তুমি যখনই চিন্নাস্বামী যাও, তখনই আরসিবি ম্যাচ হারে। কোহলিকে একা ছেড়ে দাও প্লিজ।’শাইজাব শিবা নামের এক সমর্থক লিখেছেন, ‘এই ম্যাচের হারের পেছনে কেবল আনুশকাই দায়ী।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘ম্যাডাম, আমি মেনে নিচ্ছি আপনি অনেক বড় অভিনেত্রী। তবে আমি আপনাকে অনুরোধ করছি, দয়া করে আরসিবির ম্যাচে স্টেডিয়ামে আসবেন না। আপনি যখনই আসেন তখনই ম্যাচ হারে দলটি।’এর আগেও এমন অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন আনুশকা। বিয়ের আগে তাই মাঠে গিয়ে কোহলির খেলা দেখাও বন্ধ রেখেছিলেন তিনি। সে সময় কোহলি সমর্থকদের পালটা তোপ দেগে টুইটারে লিখেছিলেন ‘আনুশকা শর্মাকে নিয়ে যারা ট্রল করছে, তাদের লজ্জা থাকা উচিত। তার কাছ থেকে আমি সবসময় কেবল ইতিবাচক ব্যাপারই পেয়েছি।-প্রিয়