যে কারণে পরের ম্যাচে নিশ্চিতভাবে একাদশে থাকছেন সাকিব-মুস্তাফিজ

ক্রিকেট খেলাধুলা

ট্রুনামেন্টে উদ্বোধনী ম্যাচে বোলিংটা ভালো হয়নি মুস্তাফিজুর রহমানে।  ৩.৫ ওভার বোলিং করে স্বভাব বিরুদ্ধ খরুচে বোলিং করে ৩৯ রান দিয়েছিলেন তিনি।  নিয়েছিলেন ১টি উইকেট।  এরমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ শেষ ওভারে ম্যাচটি দারুন কিছু করার ঈঙ্গিত দিচ্ছিলেন মুস্তাফিজ।  আগের ৩ ওভারে ২৯ রান দিলেও শেষ ওভারে নায়ক হওয়ার সুযোগ ছিল তার সামনে।  প্রথম তিনটি বলও তিনি দিয়েছিলেন ডট বল।  কিন্তু পরের দুই বলেই একটি চার ও ছক্কা হজম করে ম্যাচটি হেরে যান মুস্তাফিজ ও তার দল।

এই

হারের জন্য মুস্তাফিজের চেয়ে বেশি দায়ী ছিল ১৮ ও ১৯ তম ওভারে বোলিং করা ম্যাক্লেনগান ও জসপ্রিত।  দুজনেই নিজেদের এই ওভার গুলোতে দিয়েছিলেন ২০ রান করে।  ম্যাচ শেষে মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত নিজেও বলেছিল, শিশিরের কারনে মুস্তাফিজের বল ধরতে সমস্যা হচ্ছিল।

আর যেখানে দলের তিন পেসারই রান দিয়েছে সেখানে কাউকে আলাদা ভাবে কিছু বলার থাকেনা।  কিন্তু তারপরও উপরে যেহেতু প্যাট কামিন্সের মত বোলার বসে থাকে তখন অনেকেরই সংশয় তৈরি হয়েছিল মুস্তাফিজ খেলবে কিনা পরের ম্যাচে।  এবার কেটে গেল সেটাও।  ইনজুড়িতে পড়ে ট্রুনামেন্ট থেকেই ছিটকে গেছে অজি পেসার কামিন্স। অন্যদিকে সানরাইজার্সের সাকিব আল হাসানকে বাদ দেয়ার তো প্রশ্নই আসেনা।  গতরাতে ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিং করেছেন তিনি।  রান কম খরচ করে তুলে নিয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট।  তাই সাকিবকে ছাড়া পরের ম্যাচের একাদশ তো ভাবাই যায় না।