যে কারণে হঠাৎ চাপের মুখে কার্তিকের কলকাতা

ক্রিকেট খেলাধুলা

রোহিত শর্মাদের কাছে রবিবার (৬ মে) হারের পর ফের মুম্বাইয়ের মুখোমুখি কলকাতা। ফিরতি পর্বের ম্যাচটা অবশ্য কলকাতাদের ডেরায়।

দীনেশ কার্তিকদের এই দলটার প্রধান সমস্যা ব্যাটিং গভীরতা। লক্ষ্য করলে দেখবেন, নাইটদের ব্যাটিংয়ের লেজ বেশ লম্বা। সুনীল নারাইনকে দিয়ে ওপেন করানো হলেও ওকে তো ঠিক ব্যাটসম্যান হিসাবে ধরা যাবে না! ফলে হাতে থাকছে শুধু ছয় জন ব্যাটসম্যান। তার মধ্যে আবার রয়েছে ক্রিস লিন ও আন্দ্রে রাসেলের মতো দু’জন। যারা খেলে দিলে ঠিক আছে। কিন্তু কোনওদিন আবার শূন্য রানে আউটও হয়ে যেতে পারে! শুবমান গিলের মতো তরুণ রয়েছে। ওর ব্যাটিং বেশ ভাল। কিন্তু সেই অর্থে ‘হার্ড হিটার’ নয়। যা কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে দরকার। তাছাড়া অভিজ্ঞতাও কম। ফলে যাবতীয় চাপটা পড়ছে রবিন উথাপ্পা আর দীনেশ কার্তিকের ওপর। সমস্যাটা এখানেই।

শেষদিকে এসে মিডল বা লোয়ার মিডল অর্ডারে দ্রুত রান তোলার লোক বলতে কেবল রাসেল। এই জায়গাটাতেই কিন্তু অন্য দল থেকে একটু পিছিয়ে রয়েছে কলকাতা।

দলটার শক্তি বলতে বোলিং। ভাল করে বললে স্পিনাররা। বুধবার (৯ মে) মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটায় কার্তিকের সেরা বাজি কিন্তু হতে পারে স্পিনাররাই। আগের ম্যাচে শিবম মাভি না খেলায় জোরে বোলিংটা একটু দুর্বল দেখিয়েছে। চোটের কারণেই মূলত এমনটা হয়েছে। ওর বোলিং বেশ ভাল লাগছে। দিল্লি ম্যাচে মার খেলেও দারুণ কামব্যাক করেছে। ও দলে ফিরলে পেস বিভাগের শক্তি বাড়বে।

মুম্বইকে এবারের আইপিএলে খুব সাদামাটা দেখাচ্ছে। কিন্তু কেকেআর-এর বিরুদ্ধে অতীত রেকর্ড মানসিকভাবে ওদের এগিয়ে রাখবে। পরিসংখ্যান ঘাঁটলেই স্পষ্ট হয়ে যাবে। এখনও পর্যন্ত ২২ বার সাক্ষাতে মুম্বই জিতেছে ১৭ বার। অন্যদিকে দুই ভাই, হার্দিক পান্ডিয়া ও ক্রনাল পান্ডিয়া ঠিক সময়ে ফর্মে ফিরছে।