যে খেলোয়াড়কে বাদ দিয়ে মুস্তাফিজকে দলে নিতে বললেন কিংবদন্তি বোলার ?

ক্রিকেট খেলাধুলা

চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে জয়ের পর রোহিত শর্মাদের আত্মবিশ্বাস ফিরে এসেছে এমনটাই ভেবে ছিল সকলে। এমনকি রোহিত শর্মা নিজেও বলেছিলেন এ জয় আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করবে। তবে আবার আত্মবিশ্বাসে ভাঙ্গন ধরেছে কোহলির সাথে হেরে।

আর তাতে বলা যায় অনেকটাই অনিশ্চি প্লে-অফের দৌড় থেকে। তাই শুক্রবার (৪ মে) শেষ চারে যেতে ইনদোরে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে মরণ-বাঁচন ম্যাচে লড়বে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। শুধু এখানেই শেষ নয় গ্রুফ পর্বের প্রতিটি ম্যাচে জয় পেতে হবে মুম্বইয়ের।

রোহিতরা মোহালিতে জয় পেয়েছে তা ঠিক। তবে মোহালির পিচের চরিত্রের সঙ্গে অবশ্য এই উইকেটের বেশ কিছুটা তফাত রয়েছে। এটাকে বলা হয়ে থাকে ব্যাটিং স্বর্গ। অন্য দিকে বাউন্ডারিও ছোট। আর এই মাঠে ব্যাটসম্যানরা নয় বোলররা প্রার্থক্য গড়ে দিবে বলে মনে করেনে ভারতের সাবেক অধিনায়ক জাহির খান।

তাই বিধ্বংসী গেইলদের বিপক্ষে মুম্বায়ের একাদশে মোস্তাফিজকে দেখতে চান জাহির খান। তিনি বলেন, ‘ ব্যাটিং শক্তি না বোলিং শক্তি নিয়ে মাঠে নামবে মুম্বাই সেটা ঠিক করবে রোহিতরা। এই মাঠে বোলারদের জন্য সহজ হবে না। আমি মনে করি রোহিতদের উচিত হবে মোস্তাফিজকে দলে নেয়।’

আইপিএলের চলতি মৌসুমে সাত ম্যাচ খেলেছে পঞ্জাব। তার মধ্যে পাঁচটি ম্যাচে জয়ী প্রীতি জিন্তার দল। অশ্বিনদের প্লে-অফের দৌড়ে টিকে থাকতে গেলে বাকি সাতটি ম্যাচের মধ্যে তিনটি ম্যাচ জিতলেই হবে। উল্টো দিকে, কঠিন পরিস্থিতিতে রয়েছে মুম্বই।

আটটি ম্যাচ খেলেছেন রোহিতরা। তার মধ্যে জিতেছেন মাত্র দু’টিতে। মাত্র চার পয়েন্ট পেয়ে লিগ তালিকায় তলানিতে অর্থাৎ আট দলের ভিতরে অষ্টম স্থানে রয়েছেন মোস্তাফিজরা। প্লে-অফে খেলতে হলে দূরদর্শী হতে হবে রোহিতকে।

তাই সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে আর ভুল করা যাবে না। ছোট ছোট ভুলে কয়েকটা ম্যাচে হারতে হয়েছে রোহিতকে। আইপিএলের চলমান আসরে শুরু থেকে খেলছেন মোস্তাফিজুর রহমান। তবে হটাৎ মোস্তাফিজের পরিবর্তে দলে জায়গা দেন বেন কাটিংকে। মোস্তাফিজ দলে যতটা অবদান রেখেছে, কাটিং কি তা পেরেছে?

তাই পাঞ্জাবের বিপক্ষে কাটিংকে বাদ দিয়ে হলেওে একাদশে মোস্তাফিজকে দেখতে চান জহির খান। তার মতে, ‘বেন কাটিংকে বিসর্জন দিতে হলেও মোস্তাফিজকে একাদশে রাখা উচিত। যেহেতু ভাল ব্যাটিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হলে ভাল বোলিং আক্রমণ প্রয়োজন। দলে যখন ডেথ ওভারে মোস্তাফিজ ও বুমরার মতো বোলার থাকবে, ম্যাচের ফলাফল কেমন হবে সেটা এরাই নির্ধারণ করবে। ক্রিকেটের ছোট্ট আসরে অল্প ভুলের জন্য মোড় ঘুরে যেতে পারে।’