রাশিয়া কীভাবে ফেসবুকের মাধ্যমে আমেরিকানদের বিভ্রান্ত করছিল তা জানাতে খুলছে পোর্টাল

প্রধান খবর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা রাশিয়ার কোনো প্রোপাগান্ডার ফাঁদে পা দিয়েছিল কিনা তা জানার জন্য একটি অনলাইন পোর্টাল খুলতে যাচ্ছে সাইটটি। ওয়েব পোর্টালটিতে রাশিয়ার ইন্টারনেট রিসার্চ এজেন্সির (আইআরএ) তৈরি ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রাম পেইজের একটি তালিকা দেয়া থাকবে। একই সাথে আপনি আইআরএ-এর কোনো পেইজে লাইক দিয়েছিলেন কিনা বা সেটি ফলো করতেন কিনা তাও জানিয়ে দেবে পোর্টালটি।

ফেসবুক ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কার্যক্রম পরীক্ষা করে পোর্টালটি তৈরি করবে। এ বছরের শেষ নাগাদ ফেসবুক হেল্প সেন্টারের মাধ্যমে ফেসবুকের নতুন ওয়েব পোর্টালটি ব্যবহার করা যাবে বলে জানিয়েছে তারা।

রাশিয়া ইন্টারনেট ব্যবহার করে ২০১৬ সালে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন দারুনভাবে প্রভাবিত করেছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। ফেসবুকের ভাষ্যমতে বিতর্কিত ফেসবুক একাউন্টগুলি মানুষের মধ্যে “বিভেদ ও অবিশ্বাসের বীজ বপন” করার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছিল।

আমেরিকার তদন্তকারীরা দেখেছেন দেশটির ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদেরকে আইআরএ-এর একাউন্টগুলোর আকৃষ্ট করতে পেরেছিল। অন্তত একটি আইআরএ একাউন্ট মানুষকে সংগঠিত করে সমাবেশ ও মিছিলের আয়োজন করতে সমর্থ হয়েছিল।

ইন্টারনেট রিসার্চ এজেন্সি স্পন্সর হয়ে হাজার হাজার বিজ্ঞাপন ১ কোটি মানুষের কাছে পাঠিয়েছিল বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেসব বিজ্ঞপন আইআরএ-এর বিভিন্ন পেজে লাইক দিতে উৎসাহিত করতো। ফেসবুক এখন থেকে এ রকম অনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ করতে পদক্ষেপ নিবে বলে জানিয়েছে।

জনপ্রিয় গণযোগাযোগ মাধ্যমটি জানিয়েছে, ফেসবুক ব্যবহার করে কেউ যেন গণতন্ত্রকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে না পারে সেজন্য তারা কাজ করে যাচ্ছে।

সম্প্রতি আমেরিকা সরকার ফেসবুক ও টুইটার ব্যবহার করে রাশিয়া তাদের নির্বাচনকে কতটা প্রভাবিত করেছিল সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে। তদন্তের শুরুতেই ব্যাপকভাবে সমালোচিত হলেও নতুন পোর্টালটি চালু করে ফেসবুক সম্পূর্ণ স্বচ্ছ থাকবে বলে ইঙ্গিত দিলো।

সূত্র: দ্যা ভার্জ