শক্তি বাড়িয়ে আকাশপথে নজরদারি চালাবে বাংলাদেশ

প্রধান খবর বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে বাংলাদেশ সেনা। সমর-সরঞ্জাম থেকে শুরু করে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে ক্রমশ আধুনিক হচ্ছে। আর সেই অংশ হিসাবে নিজেদের সরঞ্জামে ড্রোন যোগ করতে যাচ্ছে প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা সংস্থা ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্স অর্থাৎ ডিজিএফআই। গোয়েন্দা নজরদারি কার্যক্রম শক্তিশালী করতে এই পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি ভিভিআইপিদের নিরাপত্তার জন‌্য অ‌্যান্টি ড্রোন সিস্টেম সংযোজনের পরিকল্পনাও নিয়েছে সামরিক বাহিনীর সংস্থাটি।

ডিজিএফআইয়ের তরফে বলা হয়েছে, গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও সার্ভেল্যান্স কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সার্ভেল্যান্স ড্রোন এবং সকল ভিভিআইপি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অ‌্যান্টি ড্রোন সিস্টেম ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে, এই ব্যবস্থার মাধ্যমে একদিকে যেমন দূর থেকে বসে অনেক কিছুর উপর নজর রাখা যাবে, তেমনই কেউ কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে চাইলেও আকাশপথ থেকেই তা নজরে চলে আসবে।
প্রসঙ্গত, চালকবিহীন ড্রোনের ব‌্যবহার বিশ্বে দিন দিনই বাড়ছে। দূর নিয়ন্ত্রিত ড্রোনে থাকা ক‌্যামেরার মাধ‌্যমে তথ‌্য সংগ্রহ নানা ক্ষেত্রেই হচ্ছে। চিনে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণেও ড্রোন ব‌্যবহার হচ্ছে। ফলে ক্রমশ বাংলাদেশের গোয়েন্দাদের ড্রোন ব্যবহার প্রয়োজনীয় হয়ে পড়ছে। আর সেই লক্ষ্যেই গোয়েন্দা বিভাগে ড্রোন আনা হচ্ছে।

অন্যদিকে, সিগন্যাল ইন্টেলিজেন্স এবং সাইবার সিকিউরিটিতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য চারটি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে গোয়েন্দা সংস্থাটি। সেগুলো হল- ইলেট্রনিক ওয়্যারফেয়ার সংক্রান্ত সক্ষমতা, ট্রান্সফ্রন্টিয়ার ইন্টেলিজেন্স পরিচালনার সক্ষমতা, স্যাটেলাইট মনিটরিং সক্ষমতা এবং সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে প্রয়োজনীয় সক্ষমতা।