শারীরিক মাপ বলতে যা বললেন মিস পেরুর প্রতিযোগীরা

বিনোদন

মিস পেরু সুন্দরী প্রতিযোগিতায় এক অভাবনীয় ঘটনা ঘটালেন প্রতিযোগীরা। নিজেদের শরীরের নানা অংশের মাপ জানানোর বদলে জানালেন অন্য কিছু, যা হতবাক করে দিয়েছে অসংখ্য মানুষকে।

রবিবার ‘মিস পেরু’ প্রতিযোগিতার এক পর্যায়ে যেখানে প্রতিযোগীদের শারীরিক মাপ জানানোর কথা, সেখানে দেশটিতে নারীদের উপর যৌন সহিংসতার পরিসংখ্যান তুলে ধরেন প্রতিযোগীরা। কামিলা কানিকোবা নামের এক প্রতিযোগী বলেন, ‘‘আমার শারীরিক মাপ হচ্ছে… আমার দেশে গত নয় বছরে পুরুষের হাতে নারী নিহতের সংখ্যা ২,২০২টি।”

আরেক প্রতিযোগী সামান্থা বাটালানোস বলেন, ‘‘আমার শারীরিক মাপ হচ্ছে… প্রতি দশ মিনিটে একটি মেয়ে যৌন শোষনের শিকার হয়ে মারা যাচ্ছে।”

আরেক প্রতিযোগী ইয়োনা আকেভেডো বলেন, ‘‘আমাদের দেশের সত্তর শতাংশের বেশি মেয়ে রাস্তায় হেনস্থার শিকার হয়েছেন।” এভাবে একের পর এক বেশ কয়েকজন প্রতিযোগী পেরু-তে নারী নির্যাতনের বিভিন্ন পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।

মিস পেরু প্রতিযোগিতার এই অংশের ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে। অনেকেই প্রতিযোগীদের এই সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন। আর সেই প্রতিযোগিতায় ‘মিস পেরু’ নির্বাচিত হওয়া বিশ বছর বয়সি রোমিনা লোজানো বুধবার বলেছেন যে, ‘‘আমি সমাজের সেইসব নারীকে সহায়তা করতে চাই, যারা এতকাল মুখ বুঁজে ছিলেন। আমি তাদের জন্য কথা বলবো।”