শীর্ষে মোহাম্মাদ অাশরাফুল আর ২ নাম্বারে মাশরাফি !

ক্রিকেট খেলাধুলা

এখন পয়ন্ত মোট ১০৩ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। অার এই ১০৩ টি ম্যাচের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৬১ টি টেস্ট খেলেছেন মোহাম্মাদ অাশরাফুল। এছাড়া মুসফিকুর রহিম ৫৭, তামিম ইকবাল ৫২ এবং হাবিবুল বাশার ৫০ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। বাংলাদেশের এই চার জন ব্যাটসম্যানই ৫০ টির বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন।

বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বচ্চো রান সংগ্রহক তামিম ইকবাল। এছাড়া তিনি সর্বচ্চো ৮ টি সেঞ্চুরি করেছেন টেস্ট ক্রিকেটে। অাসুন দেখে নেই বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি শূন্য রানে অাউট হওয়া দশ ব্যাটসম্যানদের তালিকা।

১০। এই তালিকায় দশ নম্বারে রয়েছে মাত্র ১০ ম্যাচ খেলা মোহাম্মাদ শরিফ। তিনি একজন পেস বোলার ছিলেন। ২০ ইনিংসে মোট ৭ বার শূন্য রানে অাউট হয়েছেন তিনি।

৯। এরপরে রয়েছে বাংলাদেশ টেস্ট দলের বর্তমান অধিনায়ক মুসফিকুর রহিম। বাংলাদেশের এই রান মেশিন ৫৭ ম্যাচে ১০৬ ইনিংসে মোট ৮ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন।

৮। অাট নম্বারে রয়েছেন সাবেক অলরাউন্ডার মোহাম্মাদ রফিক। ৩৩ ম্যাচে ৬৩ ইনিংসে মোট ৮ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন এই অলরাউন্ডার।

৭। বাংলাদেশের এক সময়ের টপ ওয়ার্ডার ব্যাটসম্যান রাজিন সালে রয়েছেন সাত নম্বারে। ২৪ ম্যাচে ৪৬ ইনিংসে মোট ৮ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন তিনি।

৬। বাংলাদেশ দলে অন্যতম পেসার ছিলেন তাপস বোস্য। ব্যাটসম্যান না বলেই এই লিস্টে রয়েছে তার নাম। ২১ ম্যাচে ৪০ ইনিংসে মোট ৯ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন তাপস।

৫। লিস্টের পাঁচে রয়েছেন অারেক পেস বোলার শাহাদত হোসেন। ৩৮ ম্যাচে ৬৯ ইনিংসে মোট ১০ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন এই পেসার।

৪। মনজুরুল ইসলাম রানা ছিলেন এক সময়ের সেরা স্পিনার। ১৭ ম্যাচে ৩৩ ইনিংসে মোট ১০ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছিলেন তিনি।

৩। উইকেট কিপার হিসাবে মুসফিকের পর সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট। ৪৪ ম্যাচে ৮৪ ইনিংসে মোট ১১ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন এই কিংবদন্তী।

২। দুই নম্বরে রয়েছে বাংলাদেশের বর্তমান ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ৪৬ ম্যাচে ৬৭ ইনিংসে মোট ১২ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন মাশরাফি।

১। সবার উপরে রয়েছে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা মোহাম্মাদ অাশরাফুল। বাংলাদেশ দলের এই সাবেক অধিনায়ক ৬১ ম্যাচে ১১৯ ইনিংসে মোট ১৬ বার শুন্য রানে অাউট হয়েছেন।