শেষ ওভারে কেন বিনয়?

ক্রিকেট খেলাধুলা

রবীন্দ্র জাদেজার মারা ছয়টা গ্যালারিতে উড়ে যাওয়ার পরে টিভি-তে এক ঝলক শাহরুখ খানের হতাশ মুখটা ভেসে উঠল। কলকাতা নাইট রাইডার্সের মালিকের কি তখন একবারের জন্য হলেও গৌতম গম্ভীরের কথা মনে পড়ছিল? মনে পড়বে না কেন? দুই অধিনায়কের মধ্যে যে পার্থক্য যোজন যোজন।

কেকেআরের হাতেই ছিল ম্যাচ।এই ম্যাচ নিজেদের কেরে নেয়ার অনেক মুহুর্ত ছিল। কিন্তু খেলার পরে সব কিছু ছাপিয়ে একটা মুখই ভেসে উঠছে। দীনেশ কার্তিকের! ব্যাটসম্যান কার্তিক নয়, অধিনায়ক কার্তিকের কথা বলছি। কেকেআর অধিনায়ককে দেখে মনে হচ্ছিল, পুরোপুরি বিভ্রান্ত। আইপিএলের মতো বড় মঞ্চে এ বারই প্রথম অধিনায়কত্ব করছেন তিনি। সেটার চাপই যেন নিতে পারল না। না হলে শেষ ওভারে কেউ বিনয় কুমারকে বল করতে আনে?

আগের ম্যাচেই রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ইডেনে শেষ ওভার বল করতে এসে ১৬ রান দিয়েছিল বিনয়। চেন্নাই ম্যাচেও প্রথম ওভার বল করতে এসে ১৬ রান দিয়ে যায়। ১৯ নম্বর ওভার পর্যন্ত আর বল করেনি। আত্মবিশ্বাস একেবারে ছিল না। ম্যাচ থেকে প্রায় হারিয়ে গিয়েছিল। সেই বিনয়কে কেন ২০ নম্বর ওভারে বল দেওয়া হবে?

শেষ ওভারে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৭ রান। প্রথম বলটাই নো আর ওভারবাউন্ডারি। ওখানেই ম্যাচটা বেরিয়ে যায়। গম্ভীর কিন্তু সুনীল নারাইনকে ঠিক শেষ তিন ওভারের মধ্যে একটা ওভারে নিয়ে আসত। আর নারাইন হয় উইকেট তুলে, না হয় রান আটকে চাপ বিশাল বাড়িয়ে দিত। এখানে নারাইনকে ১৬ ওভারের মধ্যে শেষ করে দিল কার্তিক। কুলদীপ যাদবের এক ওভারও বাকি থেকে গেল। টি-টোয়েন্টিতে ভুল করার জায়গা যে খুবই কম, আরও একবার বোঝা গেল।