সব ক্লাসেই ফার্স্টবয় ও এক মাত্র বংশের প্রদীপ ছিল রকিবুল

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত প্রকৌশলী রকিবুল হাসানের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।  স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠেছে গোটা এলাকার পরিবেশ।  মঙ্গলবার সকালে রাকিবুলের গ্রামের বাড়ি বিনানই গিয়ে দেখা যায়, তার মৃত্যুর খবর টিভিতে দেখার পর থেকে এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।  বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে স্বজনরা।  রকিবুলের বড় চাচা তার মৃত্যুতে বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন।  এলাকার নারী-পুরুষ, বৃদ্ধরা ছুটে এসেছেন রকিবুলের স্বজনদের সান্ত্বনা দিতে।

কিন্তু স্বজনদের কান্নায় রোলে আকাশ বাতাস ভাড়ি হয়ে যাচ্ছে।  শোকে বিহ্বল গোটা চৌহালীজুড়ে।  নিহত রকিবুল (২৯) সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়নের বিনানই গ্রামের মৃত. রবিউল করিমের ছেলে।  রকিবুল মাকে নিয়ে ঢাকায় বসবাস করতেন।  একমাত্র বড় বোন বর্তমানে আমেরিকায় বসবাস করেন।

রকিবুলের চাচা জানে আলম ও নাসির উদ্দিন জানান, আমাদের বংশের প্রদীপ ছিল রকিবুল।   তার মৃত্যুর খবর মেনে নিতে পারছি না, খুব কষ্ট হচ্ছে।  রকিবুল ছোটবেলা থেকেই ছিল ভ্রমণপিপাসু ও অত্যন্ত মেধাবী।  এ চরের ধুলোবালিতে মিসে বড় হলেও ছিল অন্যদের চেয়ে ব্যতিক্রম।  কোনো বিষয়েই কখনোই পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।  প্রথম শ্রেণি থেকে শুরু করে সব ক্লাসেই ছিল ফার্স্ট বয়।

এদিকে যমুনা চরের প্রত্যন্ত অঞ্চলে রকিবুলের বেড়ে ওঠা সম্ভুদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বলেন, রাকিবুল ছোটবেলা থেকেই মেধাবী ছিল।  স্কুলের সব ক্লাসেই প্রথম স্থানে ছিল।  এলাকার সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতেন।  তার অকালমৃত্যুতে শিক্ষক সমাজ ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

চৌহালীর বাঘুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সম্ভুদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাহহার সিদ্দিকী জানান, ১৫ দিনের ছুটিতে রাকিবুল তার স্ত্রী রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষিকা ইমরানা কবির হাসিকে সঙ্গে নিয়ে নেপালে বেড়াতে যাচ্ছিলেন।  বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ায় পর তারা জানতে পারে রাকিবুল হাসান মারা গেছে।  স্ত্রী ইমরানা কবির হাসি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তিনি আরও জানান, রকিবুল বিদেশি একটি সফটওয়্যার কোম্পানিতে ঢাকায় চাকরি করতেন।  তিনি মিরপুরের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন।  তবে সবশেষ গত বছরের বন্যার সময় রকিবুল ও তার স্ত্রী এলাকার মানুষের জন্য নিজেদের তহবিল থেকে সহযোগিতা করেন।

Comments

comments

Leave A Reply

Your email address will not be published.